ঈশান রাব্বি: একটি বেশব্লগ লিখেছে

অফিসে বসে ঝিমোনো চলবে না। রাতে ভালো করে ঘুমাতে হবে। তাহলে প্রত্যেক কর্মী বাড়তি অর্থ পাবেন। বছরে ৩০০ মার্কিন ডলার। অ্যাটনা নামের একটি মার্কিন বিমা প্রতিষ্ঠান এই বন্দোবস্ত করেছে।
ঘুমের ঘাটতি হলে কাজকর্মে ভাটা পড়ে। ব্যাপারটাকে যথেষ্ট গুরুত্ব দিয়েছে অ্যাটনা কর্তৃপক্ষ। এ জন্যই তারা সেখানকার কর্মীদের একটি চুক্তিতে উৎসাহিত করেছে। এর আওতায় তাঁদের প্রতি রাতে কমপক্ষে সাত ঘণ্টা চোখ বন্ধ রাখতে হবে।
২০০৯ সালে এ ব্যবস্থা চালু হয়। এতে গত বছর অ্যাটনার মোট ২৫ হাজার কর্মীর মধ্যে প্রায় ১২ হাজার কর্মী অংশ নেন। এ সংখ্যা ২০১৪ সালের চেয়ে ১০ হাজার বেশি। কর্মীরা বিশেষ হাতঘড়ির সাহায্যে নিজেদের ঘুমের পরিমাণ (সময়) রেকর্ড করতে পারেন। ঘড়িটির সঙ্গে অ্যাটনার বিভিন্ন কম্পিউটারের সংযোগ থাকায় সেই তথ্য স্বয়ংক্রিয়ভাবে সংরক্ষিত হবে। আবার কর্মীরা ব্যক্তিগতভাবেও ঘুমের ওই হিসাব রাখতে পারেন।
অ্যাটনার কর্মী সুবিধা শাখার উপপ্রধান কে মুনি বলেন, ‘কর্মীদের কাছ থেকে আমরা সুস্থ-স্বাভাবিক আচরণ আশা করি। এ জন্যই তাঁদের পর্যাপ্ত ঘুমের বিনিময়ে পুরস্কারের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।’ কিন্তু কেউ যদি নির্ধারিত সময় না ঘুমিয়েই প্রতিষ্ঠানকে ফাঁকি দিয়ে বাড়তি আর্থিক সুবিধা নেন, তাহলে? মুনি অবশ্য এটা নিয়ে মোটেও চিন্তিত নন। কারণ, অ্যাটনার কর্মীদের প্রতি তাঁদের যথেষ্ট আস্থা রয়েছে।
পর্যাপ্ত ঘুম হলে কর্মীরা কাজ ভালো করেন। এ বিষয়ে বেশ কয়েকটি গবেষণার ফলাফল আমলে নিয়েছে অ্যাটনা। আমেরিকান একাডেমি অব স্লিপ মেডিসিন ২০১১ সালে এক প্রতিবেদনে জানায়, কেবল যুক্তরাষ্ট্রে অনিদ্রার কারণে গড়পড়তা একজন কর্মীর প্রতিবছর ১১ দশমিক ৩ কর্মদিবসের অপচয় হয়, যার অর্থমূল্য ২ হাজার ২৮০ ডলার। এতে সব মিলিয়ে মার্কিন অর্থনীতির বার্ষিক ক্ষতির পরিমাণ ৬ হাজার ৩২০ কোটি ডলার

*ঘুম* *ডলার* *অফিস* *কাজ* *আয়* *পুরস্কার*

পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?


অথবা,

এক্ষনি একাউন্ট তৈরী কর

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত