দীপ্তি: একটি বেশব্লগ লিখেছে

জলপাইয়ের মৌসুমে টক-ঝাল-মিষ্টি আচার না খেলেই নয়। ভীষন মজার জলপাই এর টক-ঝাল- মিষ্টি আচার। খিচুরি, গরম ভাত বা যেকোন ধরনের খাবারের সাথে পরিবেশন করা যায় ভীষন মজার টক-ঝাল-মিষ্টি এই আচার। 

 শেয়ার করছি জলপাইয়ের টক-ঝাল-মিষ্টি আচারের রেসিপি :

 
উপকরণ :
- জলপাই ২ কেজি
- গুড় দেড় কাপ
- আস্ত শুকনা মরিচ ৪-৫ টি
- আস্ত ধনিয়া দেড় চা চামচ
- আস্ত জিরা ২ চা চামচ
- আস্ত মৌরি দেড় চা চামচ
- আস্ত কালোজিরা দেড় চা চামচ
- হলুদ গুঁড়া আধা চা চামচ
- তেজপাতা ২ টি
- দারুচিনি ২-৩ টুকরা
- লবন স্বাদ মত
- ৪ কাপ পানি
- ভিনেগার বা সিরকা আধা কাপ
- সর্ষের তেল কাপ

প্রণালী:
• প্রথমে জলপাইগুলো ভালোভাবে ধুয়ে পরিস্কার করে একটি পাত্রে নিয়ে ৪ কাপ পানি ও আধা চা চামচ হলুদ গুঁড়া দিয়ে ৮-১০ মিনিট সিদ্ধ করে নিতে হবে। সিদ্ধ হয়ে নরম হয়ে গেলে চুলা থেকে নামিয়ে ঠান্ডা করে হাত দিয়ে ভেঙ্গে চটকে ভর্তা বানিয়ে নিতে হবে এবং রোদে শুকাতে দিতে হবে দুই থেকে তিন দিন । 

• জলপাইয়ের ভর্তা শুকিয়ে আসার পর সব আস্ত মসলা আলাদাভাবে অল্প আঁচে তাওয়ায় হালকা টেলে নিতে হবে। একসাথে সব দেয়া যাবে না, এতে কিছু মসলা পুড়ে যেতে পারে । খেয়াল রাখতে হবে যেন মসলাগুলো কিছুতেই বেশি ভাজা না হয় বা পুড়ে না যায় , তাহলে স্বাদ খারাপ হয়ে যাবে । টেলে নেয়া মসলাগুলো গ্রাইন্ডারে বা পাটায় মিহি করে গুঁড়া করে নিতে হবে ।

• মিডিয়াম আঁচে রান্না করতে হবে । চুলায় কড়াই বসিয়ে সর্ষের তেল হালকা গরম হলে  চটকে রাখা জলপাইগুলো দিয়ে দিতে হবে । আস্তে আস্তে গুড় মেশাতে হবে। এখন লবন, ভিনেগার, টেলে গুঁড়া করে রাখা সব মসলা দিয়ে দিতে হবে । তারপর ভালোভাবে আচারের পানি শুকিয়ে ভাজা ভাজা করে ভেজে নামিয়ে ফেলতে হবে । নামানোর আগে অবশ্যই লবন আর চিনি টেষ্ট করে লাগলে দিয়ে দিবেন ।

আচার এক বছর পর্যন্ত সংরক্ষণ করবেন যেভাবে :

ভিনেগার দিলে আচার অনেক দিন ভালো থাকে , আচার পরিস্কার কাঁচের বয়ামে ভরে বাইরে বা নরমেল ফ্রিজে রেখে অনেকদিন এমনকি এক বছর পর্যন্ত  সংরক্ষন করতে পারবেন। মাঝেমধ্যে রোদে দিতে পারেন যাতে ফাঙ্গাস না জমে।

*জলপাইআচার* *জলপাইয়েরআচার* *টক-ঝাল-মিষ্টিআচার* *আচাররেসিপি* *আচার*

পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?


অথবা,

এক্ষনি একাউন্ট তৈরী কর

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত