অনি

@Mehatab

একজন সাধারাণ মানুষ
business_center প্রফেশনাল তথ্য নেই
school এডুকেশনাল তথ্য নেই
location_on লোকেশন পাওয়া যায়নি
1368684594000  থেকে আমাদের সাথে আছে
ছবি

অনি ফটোটি শেয়ার করেছে
"শুভ জন্মদিন বেশতো"

বেশতো-র ২য় বর্ষ পূর্তিতে (২৮.০২.২০১৫)

*বেশতো* *বর্ষপূর্তি* *জন্মদিন*

মালিহা চৌধূরী: একজনকে সুপারিশ করেছে

অনি

@Mehatab

একজন সাধারাণ মানুষ
৬৫৫ জন ফলো করছে

OSMAN বেশব্লগটি শেয়ার করেছে

বাংলা আমার ভাষা, মাতৃভাষা, ছোটকাল থেকে সে শুনে এসেছি, ২১ ফেব্রুয়ারি-তে প্রভাত পদযাত্রা সহ মিছিল করেছি, তারই ধারাবাহিকতায় দেশের অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ দিনগুলুতে বাংলার ইতিহাস শুনে বিশেষ করে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ শুনে রক্ত ঘরম হয়ে উঠত দেশের জন্য যুদ্ধ করতে না পারার অপ্রাপ্তি মনে কষ্ট পেতাম। কিন্তু দিন, মাস, বছর পার হয়ে সেগুলু ও দেশের স্বাধীনতার ইতিহাসের মতো বাস্তবতা থেকে সৃতির পাতায় চলে যাচ্ছে! যাচ্ছে কি চলে গেছে বলা উচিৎ। দৈনন্দিন কর্মকাণ্ডে কোথাও, সে অফিসে হোক বা অন্য কোথাও বাংলা লিখার কোন চর্চা নেই বললেই চলে। তারই পরিণাম, সহজ কোন শব্দই অনেক সময় দ্বিধা সৃষ্টি করে বানান নিয়ে। সে হিসাবে বলা যায় *বেশতো* এই বাংলা চর্চার নতুন যে দ্বার সবার জন্য খুলে দিয়েছে, সেটা ধন্যবাদ বা অন্য কোন শব্দ দিয়ে কৃতজ্ঞতা প্রকাশের ভাষা এ মুহূর্তে আমার মনে পড়ছেনা, কেন জানি মনে হয় সেরকম শব্দ আমার অন্তত জানা নেই। 
তবে আশার বিষয় *ফেবুতে* ও এখন অনেকেই বাংলাই স্ট্যাটাস লিখছে, হরহামেশাই বলা যায়। লিখাই ভুল থাকতেই পারে, হতে পারে সেটা মনের ভুল, টাইপিং এ লক্ষ্য না করার ভুল বা অজ্ঞতার ভুল। সব কিছু হয়ত মেনে নেয়া যায়, কিন্তু অজ্ঞতার কারণে বাংলা শব্দের ভুল লিখা এটা কতটুকু গ্রহণযোগ্য? 
সত্যি কথা বলতে কি আমরা এগিয়ে যাচ্ছি, অনেকটা তরতরিয়ে, সিড়ি একটা না বেয়ে একসাথে ২ বা ৩ টি টপকিয়ে! কি বা আর হবে এত্ত সিড়ি টপকালে, নিজের অস্তিত্ব, শেখড় তাতেই যদি গলদ থেকে যায়! গরীব থেকে ধনী সবাই মোবাইল ব্যবহার করছে, এতে দোষের কিছু নেই, ব-কলম থেকে শিক্ষিত সবাই লিখছে তাতে ও দোষের কিছু নেই, কিন্তু লিখার সময় নিজের ভাষা! যার জন্য রক্ত দিয়েছি, যাকে মায়ের ভাষা বলে গর্ব করি। আমাদের ভাষা সংগ্রামের কারনে যে দিন আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা হিসাবে স্বীকৃতি পেয়েছে, সে ভাষার প্রয়োগে কেন আমরা দুবার ভাবতে পারি না, নিজের কাছে দ্বিধা থাকলে লজ্জা ফেলে অন্যের কাছে কেন জেনে নিয়ে যখন নিজের ভাব প্রকাশের চেষ্টা করিনা। তখন কি তাকে দোষী বলাটা অন্যায় হবে?
এক্ষেত্রে *বেশতো* নিজের মহিমায় উদ্ভাসিত, কারণ এখানে ফেবু-র মত যে সে এসে লিখেনা! আমরা একদল বাংলা ভালবাসার লোক পেয়েছি, যারা নিজেদের চিন্তা, চেতনা, ভাবনা বাংলাতে এবং পরিষ্কার নির্ভুল বাংলাতে প্রকাশে সচেষ্ট থাকে।
হ্যা কিছুক্ষেত্রে ভুল হওয়া স্বাভাবিক, সেক্ষেত্রে আমার লিখায় কোন শব্দ ভুল থাকলে সেটা শুধরে দেয়ার অনুরোধ করবো। আর এতেই, একসময় আমার বাংলায় থাকবেনা কোন ভুল, এ আমার নতুন বছরের অঙ্গীকার!   

নীল নিলয় বেশটুনটি শেয়ার করেছে

মম চিত্তে নিতি নৃত্যে কে যে নাচে তাতা থৈথৈ, তাতা থৈথৈ, তাতা থৈথৈ। তারি সঙ্গে কী মৃদঙ্গে সদা বাজে তাতা থৈথৈ তাতা থৈথৈ তাতা থৈথৈ॥ হাসিকান্না হীরাপান্না দোলে ভালে, কাঁপে ছন্দে ভালোমন্দ তালে তালে, নাচে জন্ম নাচে মৃত্যু পাছে পাছে, তাতা থৈথৈ, তাতা থৈথৈ, তাতা থৈথৈ।
কী আনন্দ, কী আনন্দ, কী আনন্দ দিবারাত্রি নাচে মুক্তি নাচে বন্ধ-- সে তরঙ্গে ছুটি রঙ্গে পাছে পাছে তাতা থৈথৈ, তাতা থৈথৈ, তাতা থৈথৈ॥

আড়াল থেকেই বলছি বেশটুনটি শেয়ার করেছে

অদ্ভুত খারাপলাগা, কোন সংজ্ঞা নেই নেই কোন ব্যাখ্যা বা উপসংহার, গুমড়ে উঠা কান্না চাপা পড়ছে দীর্ঘশ্বাসে। এ অদ্ভুতুড়ে ভাবনা, দাড়ি, কমা নেই নেই স্বপ্নের ছড়াছড়ি, সমান্তরালে চলে খেই হারায় মৃগতৃষ্ণায়। পথচলা? দূর্গম পথচলা, চেনাগন্ডির এবড়োখেবড়ো পথ মাড়িয়ে শহরের পিচঢালা শৈল্পিক পথে অথচ হোচঁট প্রতি পদে।

----: একজনকে সুপারিশ করেছে "নিয়মিত ইউজার.ফলো করতে পারেন"

অনি

@Mehatab

একজন সাধারাণ মানুষ
৬৫৫ জন ফলো করছে
ছবি

শেখ মোঃ সজীব হুসাইন ফটোটি শেয়ার করেছে

সাফল্য নয় সার্থকতায় কাম্য হওয়া উচিত

সাদাত সাদ বেশটুনটি শেয়ার করেছে

লিখছি যা খুশি! চারিপাশ যা দেখছি, যা ভাবছি, কখন ও বাস্তবতায় গা ডুবিয়ে, কখন ও বা প্রকৃতিতে মজে, কেউ বলে গড়পড়তা! কেউ বলে বাঃ মন ছুঁয়ে গেল! কারো ভাবনায় অসন্তুষ্টি নেই, পড়ছে তাই বা কম কিসে, যাহাই হোক লিখছি! লিখে লিখে নাকি হাত পাকা হয়, হাত না পাকলে ও মন যে সমৃদ্ধ হচ্ছে! তা বেশ বুঝতে পারছি।

সাদাত সাদ বেশটুনটি শেয়ার করেছে

চেতনা তুমি ফিরে যাও ব্যারাকে! শাসকদের নির্দেশ! সততা, নৈতিক মূল্যবোধ ইতিমধ্যে গা ঢাকা দিয়েছে ব্যারাকে! আষ্টেপৃষ্ঠে জড়িয়ে থাকা অবক্ষয়ের লতাগুল্ম- নৈতিকতার ভ্রুণ কবর দিবে গলা টিপে হত্যায়! পথভ্রষ্ট মূল্যবোধ- সততাকে করবে বন্দী!

সাদাত সাদ বেশটুনটি শেয়ার করেছে

যত বেশি আগুন তত বেশি তাত । কৃষ্ণচূড়ায় মন রাখলি ? ও মেয়ে, কতবার বলেছি তোকে ? লাল রঙ দেখলেই -প্রেমে পড়তে নেই! সব লাল রঙই হৃদয়ের রঙ নয়। এখন তোর মেঘের মতো শরীর অথচ তুই মেঘ নয় , এখন তুই বৃষ্টির মতো ভার অথচ তুই বৃষ্টি নয় । তুই এখন আগুন ছাই ছাই । এখন তোর সবকটা দিন একটাও রাত নেই ; এখন তোর শুধু চেয়ে থাকা ঘুম নেই ঘুম নেই ।
ছবি

আমানুল্লাহ সরকার ফটোটি শেয়ার করেছে

মোবাইল সার্ভিস

ছবি

আগন্তুক দখলদার ফটোটি শেয়ার করেছে

রবে যদি বৃষ্টির দাড়ে ডাক দিও মোরে, কুড়োবো শিউলি ফুল পাহাড়ি পথের দাড়ে

ছবি

সাদাত সাদ ফটোটি শেয়ার করেছে

রবে যদি বৃষ্টির দাড়ে ডাক দিও মোরে, কুড়োবো শিউলি ফুল পাহাড়ি পথের দাড়ে

সাদাত সাদ বেশটুনটি শেয়ার করেছে

গো-প্রজাতি চড়িতেছে সবুজাভ ভূমিতে, গুঞ্জন উঠিছে- সাথে আছে কালো বিড়াল! উহু না! থলের ভিতর থেকে বেরিয়ে আসা হুলু বিড়াল! হামাগুড়ি দিয়ে মিশে আছে গো-প্রজাতির সাথে! এভাবে কত প্রজাতির সাথে মিশে আছে পদ্মা সেতু, নিতু, হালের মিতুকে নিশ্চিহ্ন করা ভ্রষ্টাচরণ, ঘাতক, হালের মাদক বেপারী!

সাদাত সাদ বেশব্লগটি শেয়ার করেছে

হঠাৎ করে ধনীর দুলালদের জঙ্গি হয়ে ওঠায় জঙ্গিবাদ যেন ফ্যাশনে রুপ নিয়েছে। বেশ ঘটা করেই প্রদর্শনী শুরু হয়ে গেল।কিন্তু ধনীর দুলালরা কেন ? কেবল অভাবে জঙ্গি হয়না, অরুচি ও বদহজমেও হয়। অবারিত লুঠপাট ও যথেচ্ছ ভোগে এখন এদের ভিরমি উঠছে। ইহকাল ভোগ সমাপ্ত। এখন তাদের পরকালটাও পুরোপুরি চাই। তারা তাদের শ্রেণীর প্রত্যেক সদ্যস্যকে দেখেছে, ইহকাল ভোগ সম্পুর্ন করার জন্য তাদের শ্রেণীকে জগতের মানুষ ও প্রকৃতির উপর কতোটা নির্মম ও নৃশংস হতে হয়। একই নৃশংসতা দেখাতে না পারলে পরকালের সমস্ত ভোগ তাদের হাতছাড়া হয়ে যাবে। এমন কিছু চাই যাতে পরকালটা নিশ্চিত হয়, শ্রেনী স্বার্থ অক্ষুণ্ণ থাকে আর বদহজমটাও যায়। এ জন্য বিশ্ব কবিরাজের তৈরী জঙ্গিবাদের চেয়ে মোক্ষম দাওয়াই আর কি হতে পারে?

''সংগৃহীত''

ছবি

দীপ্তি ফটোটি শেয়ার করেছে

বাদল-দিনের প্রথম কদম ফুল করেছ দান, আমি দিতে এসেছি শ্রাবণের গান॥

অনি বেশব্লগটি শেয়ার করেছে

সেহেরি খেয়ে অভ্যেশবশত যখন নিদ্রায় ডুব দেয়ার কথা তখন নিদ্রাকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে মন চলে গেল স্মৃতি রোমন্থনে, স্পষ্ট মনে আছে, এখন ও রেল ষ্টেশনে পা রাখলে রেলিং এর কোন জায়গায় বসেছিলাম, আশা করি ঠিক বলতে পারবো। কেন সেদিন ফোন করেছিলে, আমি ও সাক্ষাতে সম্মত হলাম কারণ খুঁজে হয়তো বলতে পারবোনা, তবে একটা দিক ভালোই হয়েছিল, নিজের অবস্থান তোমাকে পরিষ্কার করেছিলাম প্রথম দিনই। সে থেকে শুরু বন্ধুত্বের পথচলা। সেদিনের পূর্বের এবং পরের সম্পর্কে যোগ হলো নতুন মাত্রা। চেনা-জানার পর্বটা খুব তাড়াতাড়িই শেষ হলো। এত দ্রুত সময়ে দুজনের কাছাকাছি আসাটা, একে অপরকে জানাটা খুব কমই হয়।

সময়ের স্রোতে তাল মিলিয়ে একদিন যোগাযোগের পথ ও বন্ধ হয়ে গেল। কারণ জানতে পারলাম তিন তিনটি মাস পর। অসুস্থতা, ব্যক্তিগত জীবনে ঝড় বয়ে যাওয়া, এসব মিলিয়ে চোখ, মুখের একি হাল! সাধারণ একটি জামা গায়ে জড়িয়ে যখন আচমকা দেখা করতে এলে, আশ্চর্য্য হলে ও মনের দোটনা কেটে গেল এবং তোমার চেহারায় বুঝাতে সক্ষম হলো, কতটুকু উৎকণ্ঠায় ছিলে আমার দেখা পাওয়ার জন্য! আমি ও কিন্তু মর্যাদা রেখেছিলাম কাছের দুজন বান্ধবী প্রথম বারের মতো বাসায় এসেছিল, তোমার ফোন পেয়ে তাদের বসিয়ে রেখে তোমাকে সময় দেয়ার জন্য বের হয়ে এত বেশি সময় নিয়েছিলাম, তারা বাসা থেকে চলেই গেল!

কোন এক পড়ন্ত বিকেলে অঝোরে বৃষ্টিধারায় রিক্সায় বসে তোমার দুখগুলু যখন শুনছিলাম, বাতাসের তোড়ে বৃষ্টির ঝাপটা চোখে-মুখে লেগে যখন জিহ্বায় লাগে নোনতা স্বাদ, তখন বুঝতে পারি চোখের লোনা জল আর বৃষ্টির পানি এক হয়ে একাকার! তোমার কি মনে পরে?

চাকুরী সুত্রে তুমি দূরে চলে গেলে একদিন, তা ও নিয়ম করে যোগাযোগটা আগের চেয়ে ও বেশি ছিল। কিন্তু কি হলো আবার তোমার হারিয়ে যাওয়া! এবার আর কোন কারণ খুঁজে পায়নি! আমি তোমাকে আমার সীমাবদ্ধতা জানিয়েছি, তুমি ও সেটা মেনে নিয়েছিলে, তাছাড়া তোমার দেখা স্বপ্নে, নিজের কথা বলে আচড় লাগাতে দেইনি, বরং দোটনায় পরবে ভেবে ভালোবাসার অরাধ্য সুপ্তবাসনা প্রকাশ করিনি।

লতা তুমি কেমন আছো? শুনেছি বিয়ে করেছো, বাচ্চা ও আছে! কোন একদিন ফোন করবে ভেবে, সময়ে-অসময়ে মোবাইল নাম্বার এখন ও বন্ধ রাখতে দ্বিধা করি! নিজের একান্ত সময়ে অজানা নাম্বার থেকে ফোন আসলে প্রথমেই মনে হয় এই বুঝি তুমিই ফোন করলে!!!!!!!!!!  

রনি রহমান বেশটুনটি শেয়ার করেছে

চঞ্চলা মন উথলা আজি বৃষ্টি সাজে, বাদলা হাওয়ায় বাজে প্রেমবেদনা অন্ধকারঘন হৃদয়-অঙ্গনে, সখা জাগো সুখে প্রাণ উজাড় করে সকল ভ্রান্তি মুছে, জ্বালো তব শ্বেতাভ জ্বালো বাঁধো প্রণয়ডোরে।

রনি রহমান বেশটুনটি শেয়ার করেছে

তরী বাঁধিলাম ওপাড়ে সখি উজানস্রোত ডিঙিয়ে, ভাঙ্গা তরী মেরামত করিলাম তোর ইশারায় মাতি, ভাটির তরী উজানে নিইয়ে খুঁজিলাম সোনা মুখখানা, ঝড়ের রাতি সুর বাঁধি তব কেঁয়া পাড়ি দিব তোকে সঙ্গে নিয়ে।

পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?


অথবা,

আজকের
গড়
এযাবত
২০,৫৪২

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

+ আরও