ইমরান নাজির লিপু

@imranlipu

স্বপ্নের পিছনে দৌড়াচ্ছি...দেখি ছুতে পারি কিনা !
business_center প্রফেশনাল তথ্য নেই
school এডুকেশনাল তথ্য নেই
location_on লোকেশন পাওয়া যায়নি
1420514122000  থেকে আমাদের সাথে আছে

ইমরান নাজির লিপু: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 ‘গ্লাসনস্তনীতি’ কি? কোন পেক্ষাপটে এটি চালু হয়েছিল এ ব্যপারে কেউ কি বিস্তারিত জানেন?

উত্তর দাও (০ টি উত্তর আছে )

*গ্লাসনস্তনীতি* *সাধারণজ্ঞান* *বিসিএসপ্রস্তুতি*

ইমরান নাজির লিপু: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 ‘গ্লাসনস্তনীতি’ কি? কোন পেক্ষাপটে এটি চালু হয়েছিল এ ব্যপারে কেউ কি বিস্তারিত জানেন?

উত্তর দাও (১ টি উত্তর আছে )

*গ্লাসনস্তনীতি* *সাধারণজ্ঞান* *বিসিএসপ্রস্তুতি*
ছবি

ইমরান নাজির লিপু: ফটো পোস্ট করেছে

আমার গর্ভের সন্তানকে বাড়তে দিন, মারবেন না প্লিজ(প্লিইইজ)

সচেতন হোন।। ছড়িয়ে দিন।।

*ইলিশ* *সচেতনতা*
ছবি

ইমরান নাজির লিপু: ফটো পোস্ট করেছে

হায়রে ফেসবুক...হায়রে স্ট্যাটাস (বমি)(বমি)(বমি)

*ফটোরঙ্গ*

ইমরান নাজির লিপু: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 নিউটনের তিনটি ফর্মুলা ও বাস্তব জীবনে তার প্রয়োগ সম্পর্কে কেউ বলতে পারেন কী ?

উত্তর দাও (১ টি উত্তর আছে )

.
*নিউটন* *ফর্মুলা* *নিউটনেরসূত্র* *গতিসূত্র*

ইমরান নাজির লিপু: একটি নতুন উত্তর দিয়েছে

 ভালমানের ও ভালো ব্রান্ডের কিছু ব্লুটুথ হেডফোন, ব্লুটুথ ইয়ারফোন, ব্লুটুথ স্পিকারের নাম জানতে চাই l কত দিনের ওয়ারেন্টি দেয়া হয়? কোথায় পেতে পারি? দরদাম কেমন?
ইমরান নাজির লিপু: গান শুনতে কতকিছুই না ব্যবহার করি আমরা । চলতি পথে, বাসার কম্পিউটারে গান শোনাটাই বেশি হয়। আর এ জন্য আছে নানা রকমের বাহারি হেডফোন, ইয়ারফোন ও স্পিকার। তবে এসব হেডফোন, ইয়ারফোন বা স্পিকারে তার পেঁচিয়ে ...বিস্তারিত

১ টি উত্তর আছে

*ব্লুটুথহেডফোন* *ব্লুটুথইয়ারফোন* *ব্লুটুথস্পিকার*

ইমরান নাজির লিপু বেশব্লগটি শেয়ার করেছে

এপ্রিল ফুল দিবসটি সৃষ্টির সাথে রয়েছে মুসলমানদের করুন ও হৃদয়র্স্পশী এক ইতিহাস। ১ এপ্রিলের এই ইতিহাস অন্যান্য জাতি জানলেও অনেক মুসলিম জাতি না জানার কারনে এই বিজাতীয় অপসংস্কৃতিকে আপন করে নিয়েছে। তৎকালীন ইউরোপীয় দেশে স্পেনে মুসলিম সেনাপতি তারিক বিন যিয়াদ এর নেতৃত্বে ৭১১ খ্রীঃ ইসলামি পতাকা উড্ডীন হয় এবং মুসলিম সভ্যতার গোড়পত্তন হয়। সুদীর্ঘ প্রায় আটশ বছর পর্যন্ত সেখানে মুসলমানদের গৌরবময় শাসন বহাল থাকে। কিন্তু পরবর্তীতে আস্তে আস্তে মুসলিম সম্রাজ্যে ঘুনে ধরতে শুরু করে এবং মুসলিম শাসকরাও ভোগ বিলাসে গা ভাসিয়ে দিয়ে ইসলাম থেকে দূরে সরে যেতে থাকে। ফলে মুসলিম দেশগুলোও ধীরে ধীরে মুসলমানদরে হাত ছাড়া হয়ে খ্রীস্টানদের দখলে যেতে থাকে। এরই ধারাবাহিকতায় আসে স্পেনের পালা। মুসলিম শাসনে নেমে আসে পরাজয়ের কাল ছায়া। খ্রীস্টান জগত গ্রাস করে নেয় স্পেনের বিজয় পতাকা। এক পর্যায়ে মুসলিম নিধনের লক্ষ্যে খ্রীস্টান রাজা ফার্ডিন্যান্ড বিয়ে করে পর্তুগীজ রানী ইসাবেলাকে। যার ফলে মুসলিম বিরোধী দুই বৃহৎ খ্রীস্টান শক্তি সম্মিলিত শক্তি রুপে আত্নপ্রকাশ করে। রানী ইসাবেলা ও রাজা ফার্ডিন্যান্ড খুঁজতে থাকে স্পেন দখলের মোক্ষম সুযোগ। পরবর্তীতে মুসলিম সভ্যতার জ্ঞান বিজ্ঞানের কেন্দ্রস্থল গ্রানাডার বিরুদ্ধে যুদ্ধ শুরু করে। একপর্যায়ে মুসলমানদের অসতর্কতার সুযোগে খ্রীস্টান বাহিনী ঘিরে ফেলে গ্রানাডার তিন দিক । এক মাত্র মহাসমুদ্রই বাকী থাকে মুসলমানদের বাচার পথ। অবরুদ্ধ মুসলমানগন কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়ে এদিক সেদিক ছুটতে থাকে। মুসলমানদের এই অসহায় অবস্থায় রাজা ফার্ডিন্যান্ড প্রতারনার আশ্রয় নেন। তিনি দেশব্যাপী ঘোষনা করে দেন - "যারা অস্র ত্যাক করে মসজিদগুলোতে আশ্রয় নেবে এবং সমুদ্র পাড়ে রক্ষিত নৌযানগুলোতে আরোহন করবে তাদেরকে সবরকমের নিরাপত্তা দেওয় হবে"। এমন বিপর্যয়কর পরিস্থিতিতে মুসলমানগন যেন আশার আল খুজে পায়। সরল মনে বিশ্বাস করে মুসলমানগন মসজিদ ও নৌযানগুলোতে আশ্রয় গ্রহন করে। কিন্তু ইতিহাসের জঘন্য নরপিশাচ প্রতানক রাজা ফার্ডিন্যন্ডি তালা লাগিয়ে দেয় মসজিদগুলোতে এবং মাঝ দরিয়ায় ভাসিয়ে দেয় নৌযানগুলোকে। এরপর বিশ্ব মানবতাকে পদদলিত করে ঐ মানুষ নামের পশু ফার্ডিন্যন্ডি আগুন লাগিয়ে দেয় মসজিদগুলোর চার পাশে এবং মধ্যসমুদ্রে ডুবিয়ে দেয় নৌযানগুলোকে। ফলে অগ্নিদগ্ধ ও পানিতে হাবুডুবু খাওয়া লক্ষ লক্ষ নারি পুরুষ আর নিষ্পাপ শিশুর আর্ত চিৎকারে ভারি হয়ে উঠে স্পেনের আকাশ বাতাশ।মুহূর্তের মধ্যে নির্মমভাবে নিঃশেষ হয়ে যায় সাত লক্ষ মুসলমানের তাজা প্রান। আর এরি মধ্যে ইতি ঘটে স্পেনের আটশ বছরের মুসলিম শাসনের, আর পৃথিবীর ইতিহাসে রচিত হয় মনবতা লঙ্ঘনের নির্মম অধ্যায়। যেদিন এই মর্মন্তিক হৃদয়বিদারক ঘটনাটি ঘটেছিল সেদিন ছিল ১৪৯২ খ্রীস্টাব্দের ১লা এপ্রিল। তখন থেকে মুসলমানদেরকে ধোঁকা দেওয়ার সেই নিষ্ঠুর ইতিহাস স্মরনার্থে খ্রীস্টানরা প্রতি বছর এপ্রিল ফুল পালন করে আসছে। দুঃখের সাথে বলতে হয় "এপ্রিল ফুল" এর প্রকৃত ইতিহাস সর্ম্পকে না জানার কারনে আমরা আমাদের পূর্বসূরীদের দুর্ভাগ্যকে আনন্দের খোরাক বানিয়ে এপ্রিল ফুল পালন করছি। আমরা আর কতকাল আত্মবিস্মৃত হয়ে থাকব ? নিজেদের ইতিহাস ঐতিহ্য সর্ম্পকে অজ্ঞতার ধরা আর কতদিন আমাদের মধ্যে বিরাজ করবে। অথচ এই অজ্ঞতাই আমাদের জন্য সবচেয়ে মারাত্নক কাল হয়ে দেখা দিয়েছে।
ttp://forum.projanmo.com/topic15727.html

ইমরান নাজির লিপু বেশব্লগটি শেয়ার করেছে

কম্পিউটার বা ল্যাপটপ চালাতে একটি গ্রিপে ভালোভাবে এটে যায় এমন একটি মাউসের কোন বিকল্প নেই। স্মুথ পিসি ব্যবহারের জন্য অবশ্যই একটি ভাল ব্রান্ডের মাউস ব্যবহার করতে হয়। এজন্য বাজারে এফোরটেক, লজিটেক, ডিলাক্স, প্রোলিঙ্ক, গিগাবাইট, এক্সট্রিম, টারগাস, মার্কারি, লজিক, ভিশনসহ বিভিন্ন ব্র্যান্ডের মাউস পাওয়া যাচ্ছে।
 
তবে বর্তমান সময়ে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের মাউস পাওয়া গেলেও লজিটেক, এফোরটেক এবং ডিলাক্স ব্র্যান্ডের চাহিদা তুলনামূলক বেশি।”
 
 
রাজধানীর মাল্টিপ্ল্যান সেন্টারে ‘এফোরটেক’য়ের ইউএসবি মাউস পাওয়া যাবে ৩শ’ থেকে ৭শ’ টাকায়।
তবে ‘এফোরটেক’য়ের ব্লুটুথ মাউসগুলো কিনতে খরচ করতে হবে ৮শ’ থেকে ১ হাজার ১শ’ টাকা।
পাওয়া যাবে শহরের ‘রায়ানস কম্পিউটারস’য়ের শো রুমগুলোতে। অনলাইনে কিনতে দেখানো ছবিতে ক্লিক করুন ।
 
 
রাজধানীর বসুন্ধরা সিটি শপিং মলের ‘কম্পিউটার সোর্স’ দোকানে পাওয়া যাবে ‘লজিটেক’য়ের প্রায় সব ধরনের মাউস। সাধারণ মাউসগুলো পাওয়া যাবে সাড়ে ৪শ’ থেকে সাড়ে ৬শ’ টাকায়। তবে একই ব্র্যান্ডের ওয়্যারলেস মাউস কিনতে হলে গুনতে হবে সাড়ে ১ হাজার ২শ’ থেকে ২ হাজার ৪শ’ টাকা। ‘লজিটেক’য়ের মাউসগুলোতে পাওয়া যাবে এক বছরের ওয়ারেন্টি।
অনলাইনে কিনতে চাইলে ক্লিক করুন এই ছবিটাতে।
 
ডিলাক্স ব্রান্ডের মাউস কিনতে চলে যান রাজধানীর আইডিবি ভবনের ‘ফোরসাইট কম্পিউটার অ্যান্ড নেটওয়ার্ক’য়ে। বাহারি রঙের অপটিকাল মাউসগুলোর দাম পড়বে ৩শ’ থেকে ৫শ’ টাকা। তবে এই ব্র্যান্ডের ব্লুটুথ মাউস পাওয়া যাবে ৬শ’ থেকে ১ হাজার ২শ’ টাকায়।
 
গিগাবাইট। লজিটেক। ‘টারগাস’ ব্র্যান্ডের ইউএসবি মাউসের দাম পড়বে ৪শ’ থেকে ৬শ’ টাকা। একই ব্র্যান্ডের ব্লুটুথ মাউস পাওয়া যাবে ১ হাজার ২শ’ টাকায়। এ ধরনের মাউস অনলাইনে কিনতে চাইলে ক্লিক করুন  এখানে 
বাজেট কম হলে ‘এক্সট্রিম’ ব্র্যান্ডের মাউস বেছে নেওয়া যেতে পারে। মাত্র ১৬০ থেকে ২২০ টাকায়ই পাওয়া যাবে মাউসগুলো।
 
এছাড়া অন্যান্য ব্র্যান্ডের মধ্যে ‘গিগাবাইট’ ব্র্যান্ডের মাউস ৩শ’ থেকে ১ হাজার টাকা, ‘প্রোলিংক’ সাড়ে ৬শ’ থেকে ৮শ’ টাকা, ‘জিনিয়াস’ ৮শ’ থেকে ৯শ’ টাকা, ‘হাবিট’ ৮শ’ টাকা, ‘লেক্সমা’ ৯শ’ থেকে ১ হাজার ১শ’ টাকা এবং ‘এইচপি’র মাউসগুলোর দাম সাড়ে ৯শ’ থেকে ২ হাজার ১শ’ টাকা। অনলাইনে কিনতে চাইলে ক্লিক করুন এই ছবিটাতে।
 
 
লম্বা সময় ধরে মাউস ব্যবহার করতে চাইলে অবশ্যই কিছু বিষয় জেনে রাখতে হবে।
 
ঝামেলা বিহীন ব্যবহারের জন্য মাউস সবসময় মসৃণ জায়গায় রাখতে হবে। এক্ষেত্রে মাউসপ্যাড ব্যবহার করা ভালো।
 তিনি আরও বলেন, “ইউএসবি মাউস ঠিকমতো কাজ না করলে তা পোর্ট থেকে বিচ্ছিন্ন করে পুনরায় সংযুক্ত করে নিতে হবে।”এছাড়াও মাউস যাতে হাত থেকে পড়ে নষ্ট না হয়, সেদিকেও খেয়াল রাখতে হবে।
 
কোথায় পাবেন মাউসগুলো ?
ঢাকা শহরের আইডিবি ভবন, বসুন্ধরা সিটি, মাল্টিপ্ল্যান সেন্টার, যমুনা ফিউচার পার্কসহ ছোট বড় সব ধরনের কম্পিউটার কিংবা ইলেকট্রনিক্সের দোকানে মাউস পাওয়া যায়। এছাড়াও দেশের সবথেকে বড় অনলাইন শপিং মল আজকের ডিলে পাবেন বিভিন্ন ব্রান্ডের মাউসের বিশাল সমাহার। সেখান থেকে চাইলেও কিনতে পারবেন অনলাইনে অর্ডার দিয়ে।
 

ইমরান নাজির লিপু: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 অপারেশন সী এঞ্জেল কী ? এই অপারেশন সম্পর্কে জানতে চাই।

উত্তর দাও (১ টি উত্তর আছে )

*অপারেশন* *সী-এঞ্জেল* *সাধারনজ্ঞান*

ইমরান নাজির লিপু বেশব্লগটি শেয়ার করেছে

কম্পিউটার বা ল্যাপটপ চালাতে একটি গ্রিপে ভালোভাবে এটে যায় এমন একটি মাউসের কোন বিকল্প নেই। স্মুথ পিসি ব্যবহারের জন্য অবশ্যই একটি ভাল ব্রান্ডের মাউস ব্যবহার করতে হয়। এজন্য বাজারে এফোরটেক, লজিটেক, ডিলাক্স, প্রোলিঙ্ক, গিগাবাইট, এক্সট্রিম, টারগাস, মার্কারি, লজিক, ভিশনসহ বিভিন্ন ব্র্যান্ডের মাউস পাওয়া যাচ্ছে।
 
তবে বর্তমান সময়ে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের মাউস পাওয়া গেলেও লজিটেক, এফোরটেক এবং ডিলাক্স ব্র্যান্ডের চাহিদা তুলনামূলক বেশি।”
 
 
রাজধানীর মাল্টিপ্ল্যান সেন্টারে ‘এফোরটেক’য়ের ইউএসবি মাউস পাওয়া যাবে ৩শ’ থেকে ৭শ’ টাকায়।
তবে ‘এফোরটেক’য়ের ব্লুটুথ মাউসগুলো কিনতে খরচ করতে হবে ৮শ’ থেকে ১ হাজার ১শ’ টাকা।
পাওয়া যাবে শহরের ‘রায়ানস কম্পিউটারস’য়ের শো রুমগুলোতে। অনলাইনে কিনতে দেখানো ছবিতে ক্লিক করুন ।
 
 
রাজধানীর বসুন্ধরা সিটি শপিং মলের ‘কম্পিউটার সোর্স’ দোকানে পাওয়া যাবে ‘লজিটেক’য়ের প্রায় সব ধরনের মাউস। সাধারণ মাউসগুলো পাওয়া যাবে সাড়ে ৪শ’ থেকে সাড়ে ৬শ’ টাকায়। তবে একই ব্র্যান্ডের ওয়্যারলেস মাউস কিনতে হলে গুনতে হবে সাড়ে ১ হাজার ২শ’ থেকে ২ হাজার ৪শ’ টাকা। ‘লজিটেক’য়ের মাউসগুলোতে পাওয়া যাবে এক বছরের ওয়ারেন্টি।
অনলাইনে কিনতে চাইলে ক্লিক করুন এই ছবিটাতে।
 
ডিলাক্স ব্রান্ডের মাউস কিনতে চলে যান রাজধানীর আইডিবি ভবনের ‘ফোরসাইট কম্পিউটার অ্যান্ড নেটওয়ার্ক’য়ে। বাহারি রঙের অপটিকাল মাউসগুলোর দাম পড়বে ৩শ’ থেকে ৫শ’ টাকা। তবে এই ব্র্যান্ডের ব্লুটুথ মাউস পাওয়া যাবে ৬শ’ থেকে ১ হাজার ২শ’ টাকায়।
 
গিগাবাইট। লজিটেক। ‘টারগাস’ ব্র্যান্ডের ইউএসবি মাউসের দাম পড়বে ৪শ’ থেকে ৬শ’ টাকা। একই ব্র্যান্ডের ব্লুটুথ মাউস পাওয়া যাবে ১ হাজার ২শ’ টাকায়। এ ধরনের মাউস অনলাইনে কিনতে চাইলে ক্লিক করুন  এখানে 
বাজেট কম হলে ‘এক্সট্রিম’ ব্র্যান্ডের মাউস বেছে নেওয়া যেতে পারে। মাত্র ১৬০ থেকে ২২০ টাকায়ই পাওয়া যাবে মাউসগুলো।
 
এছাড়া অন্যান্য ব্র্যান্ডের মধ্যে ‘গিগাবাইট’ ব্র্যান্ডের মাউস ৩শ’ থেকে ১ হাজার টাকা, ‘প্রোলিংক’ সাড়ে ৬শ’ থেকে ৮শ’ টাকা, ‘জিনিয়াস’ ৮শ’ থেকে ৯শ’ টাকা, ‘হাবিট’ ৮শ’ টাকা, ‘লেক্সমা’ ৯শ’ থেকে ১ হাজার ১শ’ টাকা এবং ‘এইচপি’র মাউসগুলোর দাম সাড়ে ৯শ’ থেকে ২ হাজার ১শ’ টাকা। অনলাইনে কিনতে চাইলে ক্লিক করুন এই ছবিটাতে।
 
 
লম্বা সময় ধরে মাউস ব্যবহার করতে চাইলে অবশ্যই কিছু বিষয় জেনে রাখতে হবে।
 
ঝামেলা বিহীন ব্যবহারের জন্য মাউস সবসময় মসৃণ জায়গায় রাখতে হবে। এক্ষেত্রে মাউসপ্যাড ব্যবহার করা ভালো।
 তিনি আরও বলেন, “ইউএসবি মাউস ঠিকমতো কাজ না করলে তা পোর্ট থেকে বিচ্ছিন্ন করে পুনরায় সংযুক্ত করে নিতে হবে।”এছাড়াও মাউস যাতে হাত থেকে পড়ে নষ্ট না হয়, সেদিকেও খেয়াল রাখতে হবে।
 
কোথায় পাবেন মাউসগুলো ?
ঢাকা শহরের আইডিবি ভবন, বসুন্ধরা সিটি, মাল্টিপ্ল্যান সেন্টার, যমুনা ফিউচার পার্কসহ ছোট বড় সব ধরনের কম্পিউটার কিংবা ইলেকট্রনিক্সের দোকানে মাউস পাওয়া যায়। এছাড়াও দেশের সবথেকে বড় অনলাইন শপিং মল আজকের ডিলে পাবেন বিভিন্ন ব্রান্ডের মাউসের বিশাল সমাহার। সেখান থেকে চাইলেও কিনতে পারবেন অনলাইনে অর্ডার দিয়ে।
 

পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?


অথবা,

আজকের
গড়
এযাবত
২,০৭০

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

+ আরও