Preview
প্রশ্ন করুন

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

Preview লাবড়া সবজি কিভাবে রান্না করতে হয় ? রেসিপিটা জানতে চাই?

*পূজারখাবার* *নতুনরেসিপি* *সবজি* *লাবড়া*
( ৮ টি উত্তর আছে )

( ১৮,৩৪১ বার দেখা হয়েছে)

মন্টি মনি  আড্ডা দিতে ভালোবাসি, ভালোবাসি প্রিয় মানুষটির হাত ধরে ঘুরতে | আর ভিষণ কষ্ট পাই কেও অবহেলা করলে....

মহাগুরু

উপকরণ:- বিভিন্ন রকম সবজি (যেমন পটল,মিষ্টি কুমড়া, পেপে,বেগুন,আলু) কাচামরিচ,আদা বাটা,রসুন বাটা, জিরা বাটা,ধনিয়া বাটা,হলুদ-মরিচ গুড়া, পাঁচ ফোড়ন,তেজ পাতা, গরম মসলা,তেল,লবন স্বাদ মত,আদা কুচি,ঘি.. প্রণালী: প্রথমে পাত্রে তেল ঢেলে তাতে পাঁচ ফোড়ন,আদা কুচি, হলুদ গুড়া,মরিচ গুড়া,ধনিয়া বাটা,জিরা বাটা,তেজ পাতা,রসুন বাটা,আদা বাটা দিয়ে একটু কষিয়ে এতে সবজি দিয়ে একটু পানি দিয়ে ঢেকে দিন | কিছক্ষন পর লবন দিয়ে আবার ঢেকে দিন | সবজি সেদ্ধ হয়ে এলে এতে কাচা মরিচ,গরম মসলা, আদা কুচি, ঘি এর মিশ্রণ ছড়িয়ে দিন | ২ মিনিট পর নামিয়ে লুচি দিয়ে পরিবেশন করুন মজাদার লাবরা |

ছায়াসঙ্গী  

মহাগুরু

মিষ্টি কুমড়া, বেগুন, বরবটি, শালগম, লাউ, পটল আদা, রসুন , পেয়াজ, হলুদ, মরিচ, সাহ্জীরা, তেজপাতা, লেবু পাতা, দিয়ে চিকেন স্টক এর ভেতর রান্না করুন. রান্না হবার পর আলাদা ফ্রাই পেন এ ঘি, পেয়াজ, এলাচ, আস্ত লাল মরিচ ভেজে লাব্রার সাথে বাগার দিয়ে দিন. অল্প চিনি আর লেবুর রস যোগ করে টেস্ট এডজাস্ট করুন.

এইচ,এম,মাসউদুল আলম ফয়সাল  জাগ্রত বিশ্বকোলাহল-মাঝে গম্ভীর, স্তব্ধ, শান্ত, নির্বিকার

মহাগুরু

অপ্রচলিত, বাজারমুখীন নয় বা বাজারে তোলা হয় না এরকম শাকসবজি যেমন— ঢেঁকি শাক, হাতি শাক, বন কাঁকড়োল, কাচা কাঁঠাল, কাঁঠালের সংরক্ষিত বিচি, শিমের বিচিসহ প্রায় ২০/৩০ প্রকারের শাকসবজি, মিলেমিশে যা যা রান্না করা হয় এই বহুমিশালি শাকসবজিকে গ্রামে ‘লাবরা’ বলে | লাবরার রান্নার লৌকিক বিধি হচ্ছে এতে তিতা, মিঠা, কষ্‌টে, ঝাল অর্থাৎ প্রকৃতির নানা স্বাদের মিশেল থাকে সাধারণত | তৈরির প্রণালী - (সংগৃহীত ) - তরকারী ভালো করে কেটে, ধুয়ে একটি গামলায় রাখুন। অন্য একটি ঘিরে তেল এবং ঘি নিয়ে কাটা তরকারির সঙ্গে মাখুন। পরিমান মতো লবন, তেলের সঙ্গে একটু কম আদাবাটা আর একটু বেশি জিরাবাটা, গরম মশলাবাটা, কাচামরিচ দিয়ে চুলোয় চড়িয়ে দিন। তরকারীটি সিদ্ধ হয়ে গেলে এক চামচ চিনি এবং পরিমান মতো আন্দাজ করে ঘি মিশিয়ে ঢেকে রাখুন। তারপর কিছুক্ষণ পেরিয়ে গেলেই তৈরি হয়ে যাবে লাবরা। এবার লুচি দিয়ে খাবারটি পরিবেশন করুন |

Lutfun Nessa  সবই অনিশ্চিত, মরিব এটা নিশ্চিত:(

মহাগুরু

হুম মিক্সড সবজি দিয়া লাবড়া রান্না করা আমার খুব পছন্দ, সকালের নাস্তায় রুটির সাথে এই মজাদার ম্যানুটি  যেন না হলেই নয়! আমি যেভাবে করে থাকি সেটা বলছি: 

উপকরণ: যে যে সবজি ব্যবহার করে থাকি - মোটামুটি সমানুপাতিক হারেই দেবার চেষ্টা করি যেমন: আলু, মূল,বরবটি, চিচিঙ্গা, মিষ্টি কুমড়া, পটল ইত্যাদি! পিয়াজ, কাঁচা মরিচ, সামান্য শুকনো মরিচের গুঁড়ো,, হলুদ গুঁড়ো, পাঁচ ফোড়ন, আদা বাটা রসুন বাটা, রান্নার তেল, ঘি, স্বাদমত লবন, বেকিং সোডা!

প্রণালী: সবজিগুলো গোটা গোটা (একটু মোটা ) করে কেটে ধুয়ে একটু হালকা জ্বালে ভাপ দিয়ে পানিটা ঝেড়ে নিন!

# কড়াইতে তেল গরম করে তার মধ্যে পিয়াজ কুচি দিয়ে কম আঁচে পিয়াজ হালকা বাদামি হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন! 

# এবার বাটা পিয়াজ, রসুন, আদা, ধনে গুঁড়ো, মরিচের গুঁড়ো, কাঁচা মরিচ, লবন তেলে  দিয়ে ভাল করে কষাতে থাকুন!

# উপরে তেল উঠলে তার মধ্যে সবজি দিয়ে ঢেকে দিন এবং মাদ্ধমে আঁচে কিছুক্ষন ঢেকে রাখুন,,, 

# সবজিগুলো ভালো করে সেদ্ধ হলে তার মধ্যে ১/২ চা চামুচ পরিমান বেকিং সোডা দিয়ে এবার একটু ঢেকে  দিয়ে মিনিট পাঁচেক হালকা আঁচে রাখুন...

# এবার ঢাকনাটা তুলে একটু ঘটে দিয়ে সব্জিগ্যুল ভালো করে ইচ্ছেমতো লাবড়া করে নিন,,,

# এবার অন্য একটা ফ্রাই প্যান গরম করে তার মধ্যে সামান্য ঘি দিন , 

# ঘি গরম হলে তার মধ্যে সামান্য পিয়াঁজ , রসুন কুচি ও পাঁচ ফোড়ন দিয়ে হালকা আঁচে বাদামি রং হওয়া পর্যন্ত  অপেক্ষা করে সবজিগুলো ঢেলে দিয়ে নেড়ে ভাল করে ফোরণটাকে মিশিয়ে দিন ! এবার  হয়ে গেলো  মজাদার পাঁচ মিশালী সবজি বা সবজির লাবড়া!

এবার গরম গরম রুটি বা লুচির সাথে পরিবেশন করুন! সবাইকে খুব তৃপ্তি সহকারে ভোজন করে তৃপ্তি পাবেন বলে আশা করি!

শুভেচ্ছা..................

মো আকছাদুর রহমান  যে এখনও নিজেকে চিনেনা...........

মহাগুরু

উপকরণঃ বেগুন, কুমড়া, আলু, পটল, মুলা, কাঁচকলা, পেঁপে, পাঁচফোড়ন, তেল, আদা বাটা, জিরা বাটা, লবণ ও হলুদ। প্রণালীঃ টুকরো করে সব সবজি কেটে নিন। কড়াইয়ে তেল গরম করুন। এতে শুকনা মরিচ তাতিয়ে পাঁচফোড়ন ভেজে সবজি ঢেলে দিন। এরপর এতে লবণ ও হলুদ দিয়ে কষিয়ে নিন। কিছুক্ষণ কষানোর পর আদা ও জিরা বাটা দিয়ে আবার কষিয়ে ঢেকে দিতে হবে। পানি শুকিয়ে গেলে আরও কিছুটা পানি দিয়ে দিতে হবে। মাখা মাখা হয়ে এলে নামানোর আগে সামান্য চিনি দিয়ে উল্টে-পাল্টে নামাতে হবে। গরম গরম লুচির সঙ্গে পরিবেশন করুন।

মাহনূর তাবাসসুম মীম  তখন আমি অনেক ছোট, মৃত্যু বুঝতাম, যুদ্ধ বুঝতাম না। এখন আমি অনেক বড়, যুদ্ধ বুঝি, মৃত্যু বুঝি না।

মহাগুরু

লাবরা উপকরণঃ বেগুন, কুমড়ো, আলু-এই তিন পদের তরকারী সহ আরো দুই পদের তরকারী থাকলে ভালো হয়। প্রনালীঃ এই তিন পদের তরকারী ভালো করে কেটে, ধুয়ে একটি গামলায় রাখুন। অন্য একটি ঘিরে তেল এবং ঘি নিয়ে কাটা তরকারির সঙ্গে মাখুন। পরিমান মতো লবন, তেলের সঙ্গে একটু কম আদাবাটা আর একটু বেশি জিরাবাটা, গরম মশলাবাটা, কাচামরিচ দিয়ে চুলোয় চড়িয়ে দিন। তরকারীটি সিদ্ধ হয়ে গেলে এক চামচ চিনি এবং পরিমান মতো আন্দাজ করে ঘি মিশিয়ে ঢেকে রাখুন। তারপর কিছুক্ষণ পেরিয়ে গেলেই তৈরি হয়ে যাবে লাবরা। এবার লুচি দিয়ে খাবারটি পরিবেশন করুন।

রিংকু  প্রত্যেক ক্রিয়ারই একটি সমান ও বিপরীত প্রতিক্রিয়া রয়েছে :P

মহাগুরু

উপকরনঃ - পোলাউ চালঃ এক পোয়া - মুশরি ডালঃ আধা পোয়া - নানা পদের সবজি (চিচিঙ্গা, পটল, বেগুন, আলু) আপনারা চাইলে এখানে আরো নানান পদের সবজি দিতে পারেন। - পেঁয়াজ কুচিঃ হাফ কাপের কম (বাগারের জন্য) - আদা ছেঁচাঃ এক চা চামচ - শুকনা মরিচঃ চার পাঁচ টা (ঝাল বুঝে) - হলুদ গুড়াঃ এক চা চামচ - মরিচ গুড়াঃ এক বা হাফ চা চামচ (বুঝে) - লবন - তেল (হাফ কাপের কম, দুইবার ব্যবহার হবে) - পানি প্রনালীঃ সবজি কেটে ধুয়ে রাখুন। চাল ডাল মিশিয়ে ধুয়ে রাখুন। কড়াইতে তেল গরম করে তাতে আদা ছেঁচা এবং শুকনা মরিচ দিয়ে ভাঁজুন। সুন্দর ঘ্রান বের হবে এবার সবজি দিয়ে দিন এবং সামান্য লবন এবং হলুদ ও মরিচ গুড়া দিয়ে মিশিয়ে নিন। সবজি গুলো কিছুক্ষন ভেঁজে নিন এবং শেষে চাল ডাল দিয়ে দিন। ভাল করে মিশিয়ে নিন এবং কিছুক্ষণ ভাঁজুন। ভাঁজা হয়ে গেলে এবার পানি দিন। পানি কিছু বেশী দিলেও অসুবিধা নেই। পানি দিয়ে মোটামুটি এভাবে করে নিতে হবে। এবার ঢাকনা দিয়ে মিনিট ২০ মাধ্যম আঁচে রেখে দিন। মাঝে মাঝে ঢাকনা তুলে নাড়িয়ে দিতে ভুলবেন না। এমন অবস্থায় আস্তে দেরী লাগবে না। এবার ঘুটনি দিয়ে ঘুটিয়ে দিতে পারেন। সবজি ও চাল ডাল মিশে একাকার হয়ে যাবে। এবার অন্য একটা কড়াইতে পেঁয়াজ কুচি ভাঁজুন, বাগার দেবার জন্য। এখানে সামান্য ঘি দিতে পারেন। স্বাদ বেড়ে যাবে। পেঁয়াজ কুচি হলদে হয়ে গেলে সরাসরি খিছুড়ির উপর ঢেলে দিন। ভাল করে মিশিয়ে নিন। ফাইন্যাল লবন দেখুন। লাগলে দিন। ব্যস পরিবেশনের জন্য প্রস্তুত। ডিম ভাজি, আঁচার কিংবা যে কোন ভর্তা দিয়ে চালিয়ে দিতে পারেন। আশা করছি ছেলে বুড়ো সবাই নাস্তা হিসাবে বেশ পছন্দ করবে।

দীপ্তি  আমি শান্ত, সাম্য, আহ্লাদী, মিশুক, পরিপাটি, গোছালো, খুব নরম মনের একজন সাধারণ মানুষ :)

মহাগুরু

পূজাতে লুচির সাথে লাবড়া ছাড়া তো ভাবাই যায় না। শুধু পূজা কেন, এক ছুটির দিনের পর্যন্ত বিকেলে লুচি-লাবড়া বানিয়ে তাক লাগিয়ে দিতে পারেন পরিবারের সবাইকে।  আর নানান ধরণের সবজি এখন পাওয়া যাচ্ছে, তাই এখন লাবড়া বানিয়েও মজা কেননা লাবড়াতে যত রকম সবজি পরবে, তা খেতে তত বেশি মজা হবে। সাথে একটু খানি পাঁচ ফোঁড়ন দিলে এর ঘ্রাণটাও হবে অসাধারণ। তাহলে দেখে নেয়া যাক পাঁচ ফোঁড়ন দিয়ে লাবড়ার রেসিপি।

লাবড়ার উপকরণ : 

ফুলকপি, বাঁধাকপি, শিম, ধনে পাতা, পটোল, আলু, বরবটি, পেঁপে, মিষ্টিকুমড়া (মৌসুমি সব ধরনের সবজিই এই রান্নায় ব্যবহার করা হয়), পাঁচফোড়ন আধা চা-চামচ, গোটা জিরা এক চিমটি, শুকনা মরিচ ও তেজপাতা দুটি, থেঁতো করা আদা আধা চা-চামচ, চিনি দুই চা-চামচ, ঘি এক চা-চামচ, সাদা তেল পরিমাণমতো।

প্রণালি: সবজিগুলো কেটে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে রাখুন। এবার একটি নন-স্টিক পাত্রে সাদা তেল গরম করে পাঁচফোড়ন দিন। এরপর গোটা জিরা, তেজপাতা, শুকনা মরিচ দিন। এই উপকরণগুলো কালচে হয়ে এলে থেঁতো করা আদা দিন। এবার সবজিগুলো কড়াইতে দিয়ে একটু হলুদ ও লবণ দিয়ে ঢেকে দিন। একটু পর পর ঢাকনা তুলে নাড়তে থাকুন। পানি শুকিয়ে সবজিগুলো গায়ে গায়ে লেগে এলে চিনি দিয়ে একটু নেড়ে নিন। এবার এক চা-চামচ ঘি দিয়ে পাঁচ মিনিট ঢেকে নামিয়ে নিন। খিচুড়ি, লুচি কিংবা গরম ভাতের সাথে পরিবেশন করুন মজাদার সবজি নিরামিষ।


অথবা,