Preview
প্রশ্ন করুন

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

( ৯ টি উত্তর আছে )

( ৫,৭৬৬ বার দেখা হয়েছে)

বাংলার বেদুঈন  মানুষের অফুরন্ত সম্ভাবনায় বিশ্বাস হারাতে নেই

মহাগুরু

প্রশ্নটির উত্তর দুপুরেই দিতে চেয়েছিলাম কিন্তু সময়ের অভাবে দিতে পারিনি। পালং শাক একটি শীতকালীন সবজী এবং সঠিক নিয়মে রান্না করলে এটি খেতে খুবই সুস্বাদু হয়।আসুন জেনে নেই চট জলদি রাঁধা যাই এমন কিছু রেসিপি।রেসিপি ১/ পুঁটি মাছ ও পালংশাক -পালং শাক ভাল করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে ফেলুন, মাছ ভালকরে ধুয়ে এগুলোরও পানি ঝরিয়ে নিন। পেয়াজ কুঁচি তেলে দিয়ে নাড়তে থাকুন এবং একটু খয়েরি হয়ে এলে হলুদ(বাটা হলুদ) ও সামান্য মরিচের গুঁড়া ও পরিমান মত লবন দিন। পানি দিয়ে একটু পাতলা পেস্ট করুন এবং বুঁদ বুঁদ এলে মাছ দিয়ে দিন। ২০ মিনিট পর মাছ কসান হয়ে গেলে আলাদা করে উঠিয়ে রাখুন।এইবার আস্তে আস্তে শাক দিন কিন্তু বাড়তি পানি দেবেন না কিন্তু।শাক টা এইবার ভাল করে মসলা মাখিয়ে ভাল করে কসান এবং ঢেকে রাখুন।শাক সেদ্ধ হয়ে এলে মাছগুলো উপরে ছড়িয়ে দিয়ে একটু পানি দিয়ে ঢেকে দিন এবং ১৫ মিনিট পর নামিয়ে ফেলুন।রেসিপি ২/ পালং শাঁক ও চিংড়ি মাছ। একই নিয়মে রাধতে হবে তবে এই ক্ষেত্রে মাছ একটু বেশী সময় কষাতে হবে এবং আলাদা করে উঠিয়ে রাখতে হবে না।রেসিপি ৩/ পালং শাঁক ও শিং মাছ। পেয়াজ তেল দিয়ে কিছুক্ষণ ভেজে একটু রসুন বাটা, হলুদ, কাঁচা মরিচ ৩ বা ৪টি সাথে অল্প মরিচের গুঁড়া ( শুধু একটি ভাল রং আনার জন্য ) ও পরিমান মত লবন দিয়ে ভাল করে নাড়ুন এবং মসলা ধরে আসার আগেই মাছ দিয়ে ভাল করে কষাতে হবে। মাছ সেদ্ধ হয়ে গেলে উঠিয়ে রেখে শাঁক দিয়ে নাড়তে থাকুন এবং ১০ মিনিট ঢেকে রাখুন। এরপর মাছ দিয়ে আবার একটু পানি দিয়ে আরও ১০ মিনিট রেধে খাবার টেবিলে গরম গরম পরিবেশন করুন।পালং শাঁক ঠাণ্ডা হয়ে গেলে খেতে তেমন মজা লাগে না। সুরাইয়া আপুর রেসিপিটা দারুন হয়েছে তাই আমি কই মাছের রেসিপি দিলাম না। সাব্বির ভাইয়ের ডালের রেসিপিটাও অনেক মজার তবে এটা সকালে নাস্তার সাথে খেতে ভাল লাগে।রিনি আপু রান্না খারাপ হলে আমাকে বকবেন না কিন্তু শুভ রাত্রি সবাইকে।

সুরাইয়া  The sunflower is mine, in a way....

মহাগুরু

আমার প্রিয় একটা রেসিপি বলি--- 'পালং শাক দিয়ে কই মাছ', কই মাছ প্রথমে ভেজে নিতে হবে। এরপর পেয়াজ কুচি, মরিচ, গুড়ো হলুদ, একটু আদা রসুন বাটা,লবন পরিমান মত নিয়ে তেলে কিছুখন কষাতে হবে। এরপর এর মধ্যে পালং শাক দিয়ে আরও কিছুক্ষণ কষাতে হবে। একটু পানি দিতে হবে। এরপর এর মধ্যে কই মাছ দিয়ে দিতে হবে। ৫ মিনিট রেখে নামানোর আগে জিরা গুড়ো দিয়ে নামাতে হবে। এরপর ভাতের সাথে এটা খেতে হবে। :)

পাগলী  আমি নিজের সম্পর্কে কিছু জানলে ত কমু?

মহাগুরু

পনির দিয়ে পালং শাক ঃ কড়াইতে তেল গরম হলে কিউব করে কাটা নানক পনীর ফ্রাই করে উঠিয়ে রাখ। এবার আস্ত জিরা দাও তেল এ। হলুদ, মরিচ, আদা বাটা দাও। আস্ত লাল শুকনা মরিচ দাও। দুইটা টমেটো কুচি করে দিন। যাতে একেবারে মিশে যায়। ভাল করে কষাও।এবার পালং শাক কেটে দিয়ে দাও। ঢেকে রাখ একটু কম জ্বালে। মাখা মাখা হলে দুই চামচ ময়দাতে সামান্য পানি দিয়ে গুলে শাকে দিয়ে দাও। এক কাপ ক্রিম দাও। লবন দাও। এবার পনীর দিয়ে ঢেকে ৫/৭ মিনিট জ্বাল দাও।

গোলাম মোহাম্মাদ সাব্বির  সবাই আমার শিক্ষক। মানে.................. আমি সবারই ছাত্র!!!

পন্ডিত

পালং শাক দিয়ে কালাইর ডাউল ঘাটি খুবই মজাদার। আমার একটি পছন্দনীয় খাবার।

হিমু  এমন একজন মানুষ ,যে চালাক না আবার বোকাও না ! বুদ্ধি দ্বারা যে মানুষ এই জগত্‍ কে না বোঝার চেষ্টা করে চেতনা দিয়ে করে সেই হিমু !

পন্ডিত

গরম ভাতে পালংশাক দিয়ে ছোট মাছ বিশেষ করে মালা-ঢেলা মাছের ঝোল সে এক অসাধারন খাবার

মিঃ খান  এক কথার মানুষ

পন্ডিত

পালং শাকের সাথে ছোট মাছ দিয়ে হালকা ঝোল ঝোল করলে অনেক ভালো লাগে। আমার মা করতো। উত্তরটা সেখান থেকে চুড়ি করা।

রশিদা আফরোজ  আমিই আমার প্রিয়!

গুরু

পালং শাক দিয়ে স্যুপ বানানো যায়। পালং শাক ব্লেন্ডারে পেস্ট করে গরুর মাংস রান্না করা যায়। পালং শাক দিয়ে পাকোড়া বানানো যায়। পালং হলো শাকের রাজা। এ শাক স্রেফ লবণ দিয়ে ভাপিয়ে সস দিয়ে নাস্তায় খাওয়া যায়। আর পাপাই কার্টুনের পাপাই পালং মানে স্পিনাচ খেয়ে শক্তি বৃদ্ধি করে প্রেমিকাকে উদ্ধার করে। তাই প্রেমিকদের জন্য পালং একটি আদর্শ শাক।

মকসুদা হালিম  জন্ম আমার শ্রাবণ মাসে, পূর্ণিমার রাত-- / ফুলের বাগান গড়ে ওঠে যেদিক বাড়াই হাত !

পন্ডিত

ডিম দিয়ে পালং শাক রান্না ও পালং শাক ভাজি উপকরনঃ ২৫০গ্রাম পালং শাক, ৬টুকরা করা ১টা ডিম সিদ্ধ, এলাচ২টা, লং২টা, দারুচিনি ২টা, কুচি করা পেয়াজ ৩টা, টেবিল চামচের ২চামচ তেল চা চামচের ১চামচ আদা বাটা চা চামচের ১চামচ রসুন বাটা হলুদ গুরা আধ চা চামচ জিরা আধা চা চামচ মরিচ গুরা ১ চামচ ধনিয়া গুরা ১চা চামচ প্রস্তুত প্রনালীঃ প্রথমে তেল গরম করে পেয়াজ ঢেলে দিন তারপর গরম মসলা গুলো একে একে ছেড়ে দিন, কিছুক্ষন নাড়াচাড়া করে আধা কাপ পানিদিন বাকি মসলা গুলো একে একে ছেড়ে দিন লবন ১ চা চামচ মিশান, এবার ডিম ছেড়ে দিয়ে কিছুক্ষন নাড়িয়ে পালং শাক ছেড়ে দিন। আলাদা পানি দেয়ার প্রয়োজন নেই, ডাকনা দিয়ে রেখে দিন কিছুক্ষন পর নামিয়ে ফেলুন। শাক প্রস্তত! পালং শাক ভাজি ✿✿উপকরণ: ✿ পালং শাক - ৩০০ গ্রাম ✿ পেয়াজ - ২ টা (মাঝারি) ✿ রসুন - ৪-৫ কোয়া ✿ কাঁচামরিচ - ২-৩ টা ✿ লালমরিচ (ভাঙা) - ১ চা চামচ (ঐচ্ছিক) ✿ লবন - ১/২ চা চামচ ✿ তেল - ৪ টেবিল চামচ ✿✿✿ প্রণালী -- পালং শাক ধুয়ে কেটে নিন। পেয়াজ,রসুন ও কাচামরিচ কাটুন।একটি প্যানএ পেয়াজ,রসুন আর তেল ছাড়া বাকি সব উপকরণ নিন।প্যানএ ঢাকনা দিন আর মাঝারি তাপে ১০ মিনিট রান্না করুন। পালং শাক নরম হয়ে আসলে প্যান চুলা থেকে নামিয়ে রাখুন। এখন একটি কড়াইতে তেল গরম করুন এবং এতে কাটা পেয়াজ, রসুন দিয়ে ১ মিনিট ভাজুন। তারপর এতে পালং শাক দিয়ে আরো ১ মিনিট ভাজুন। ভাত অথবা রুটির সাথে পরিবেশন করুন।,

ভূলু | ভূলু'স রেসিপি  www.vulusrecipe.com, বাংলায় বাংলাদেশে প্রথম রেসিপি ব্লগ

গুণী

দেশি মাছের সাথে পালং দিয়ে অনেক রেসিপিই করা যায়। রশিদা আফরোজ অনেকগুলো রেসিপির কথা বলেছেন। আমার পালং শাকের একটা স্যুপের রেসিপি আছে, অনেক আগেই ব্লগে শেয়ার করেছিলাম, দেখতে পারেন এই লিঙ্কেঃ http://goo.gl/ণ্দ৯


অথবা,