Preview
প্রশ্ন করুন

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

( ২ টি উত্তর আছে )

( ৩,৪৬৭ বার দেখা হয়েছে)

যারিন তাসনিম  সুকন্যা

মহাগুরু

উপকরণ : রসুন-২৫০ গ্রাম, আদা বাটা-১০০ গ্রাম, রসুন বাটা ১০০ গ্রাম, শুকনো মরিচের গুঁড়া-৫ চা চামচ, হলুদ-আধা চা চামচ, লবণ-স্বাদমতো, সরষের তেল-১ কাপ, আখের গুড়-১ চা চামচ, আমচুর-৫০ গ্রাম, পাতিলেবু-২টি (রস)। প্রস্তুত প্রণালি : রসুন খোসা ছাড়িয়ে এর সঙ্গে আদা বাটা, রসুন বাটা, শুকনো মরিচ গুঁড়া, হলুদ, লবণ, গুড়, আমচুর ও লেবুর রস ভাল করে মেশান। ২-৩ দিন রোদে দিয়ে বোতলে ভরে রাখুন। মাঝে মাঝে রোদে দিতে হবে। ধন্যবাদ

পূজা  

গুরু

তেতুলের টক দিয়ে রসুনের আচার: রসুনের আচার তৈরি করতে আমাদের যা যা লাগবে : ১. বড় রসুন আস্ত ৫ টা থেকে কোয়া আলাদা করে খোসা ছাড়ানো ।( খোসা ছাড়ানোর পর দেখলাম ১ কাপের মত পরিমাণ হয়েছে )। ২. সরিষার তেল ১ কাপ ৩. রসুন বাটা ১ চা চামচ ( না দিলেও চলবে ) ৪. পাঁচফোড়ন মশলা ১ চা চামচ ৫. হলুদের গুড়ো আধা চা চামচ ৬. মরিচের গুড়ো ১ চা চামচ ৭. লবন আধা চা চামচ ( প্রয়োজন মত ) ৮. তেতুলের ঘন মাড় আধা কাপ ৯. শুকনা মরিচ আস্ত কয়েকটা ১০. কাচামরিচ ইচ্ছেমত ( ডাটা ফেলে দেয়া ) ১১. সিরকা ১ টেবিল চামচ প্রস্তুত প্রণালী : ১. রসুন ও কাচামরিচ ধুয়ে রোদে শুকিয়ে নিন । ( পানি শুকানোর জন্য রোদে দিবেন , পাতলা কাপড় দিয়েও পানি মুছে নিতে পারেন ) ২. এখন চুলায় কড়াই চড়িয়ে তাতে সরিষার তেল দিন । তেল গরম করে নিন । ধোয়া বের হয়ে গেলে বুঝতে পারবেন তেল গরম হয়ে গেছে । ( তেল পুরোপুরি গরম না হলে মশলা দেয়ার পর ফেনা হয়ে যাবে তাই সরিষার তেল গরম করে ব্যবহার করতে হয় ) ৩. চুলার আগুন বন্ধ করে দিন কিংবা কড়াই চুলা থেকে নামিয়ে নিন । ( যাতে মশলা পুড়ে না যায় ) ৪. এখন রসুন বাটা , হলুদের গুড়ো , মরিচের গুড়ো , পাঁচফোড়ন মশলা ও লবন দিন । ৫. এবার রসুন ও কাচামরিচ দিয়ে কড়াই আবার চুলায় বসান । অল্প আঁচে রান্না করুন । ৬. তারপর তেতুলের মাড় দিন সাথে আস্ত শুকনা মরিচগুলোও দিন । ৭. সব মিশে গেলে অল্প আঁচে রান্না করুন যাতে রসুন সিদ্ধ হয়ে যায় । ( ৫ থেকে ৮ মিনিট লাগবে ) । ৮. এখন সিরকা দিয়ে দিন । কয়েকবার বলক উঠলে নামিয়ে নিন । ৯. ঠান্ডা হলে বৈয়ামে / কৌটায় ভরে রাখুন । ১০. মাঝে মাঝে আচারের বৈয়াম কড়া রোদে শুকাতে দিবেন । এতে আচার ভালো থাকবে । তেতুলের মাড় : আধা কাপ তেতুল নিয়ে ধুয়ে ১ কাপ পানিতে ভিজিয়ে রাখুন ৩০ থেকে ৪০ মিনিট । তারপর হাত দিয়ে চটকে সেই তেতুল ভেজানো পানি ছাকনি দিয়ে ছেকে মাড় বের করুন । প্রয়োজনের অতিরিক্ত তেতুলের মাড় দিয়ে চাটনি বানিয়ে ফ্রিজে রেখে দিবেন । অনেকদিন পর্যন্ত ভালো থাকবে । তেতুলের চাটনি : একটা কড়াইয়ে অল্প একটু সরিষার তেল দিয়ে তাতে মরিচের গুড়ো , লবন দিয়ে তেতুলের মাড় দিয়ে দিন ।একটু জ্বাল দিয়ে সিরকা দিবেন । কিছুক্ষন নাড়াচাড়া করে নামিয়ে ঠান্ডা করে কৌটায় ভরে ফ্রিজে রেখে দিন । (সংকলিত)


অথবা,