Preview
প্রশ্ন করুন

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

Preview গ্রাফিক্স ডিজাইনার হওয়ার জন্য কি ধরনের যোগ্যতা থাকা প্রয়োজন ?

*ইন্টারনেট* *চাকরি* *ক্যারিয়ারটিপস* *পার্টটাইমজব* *ফ্রিল্যান্সিং* *গ্রাফিক্সডিজাইন*
( ১১ টি উত্তর আছে )

( ২৫,৩১০ বার দেখা হয়েছে)

★ছায়াবতী★  ছায়ামানবী ...ছায়া ছায়া অনুভবে

মহাগুরু

Graphic design এ কাজের মূলকথা হল কাজের যোগ্যতা।তাই এ কাজ ভালভাবে শিখে বিভিন্ন ধরনের কাজে নিজেকে ডেভলপ করাই বড় কথা। কম্পিউটারের মাধ্যমে যেসব সফটওয়্যার ব্যবহার করে ডিজাইনের কাজ করা হয় সেগুলোই হলো গ্রাফিক্স সফটওয়্যার। আমাদের দেশে বেশি ব্যবহৃত হয় এমন কয়েকটি সফটওয়্যার হলো_ এডব ফটোশপ, এডব ইলাস্ট্রেটর, এডব ইমেজ রেডি, কোয়ার্ক এক্সপ্রেস, পেজমেকার ইত্যাদি। এসব সফটওয়্যার বিভিন্ন কাজের জন্য বিশেষ উপযোগী। সবার আগে বেসিক কম্পিউটার ও ইংরেজি ভাষায় মোটামুটি দক্ষতা থাকা দরকার। ★গ্রাফিক্স ডিজাইন করার জন্য অনেক সফটওয়্যার রয়েছে। তবে কাজের ধরন অনুযায়ী সফটওয়্যার প্রয়োজন হয়। দক্ষ গ্রাফিক্স ডিজাইনার হতে হলে অনেক ধরনের সফটওয়্যার সম্পর্কে ধারণা নিতে হবে আপনাকে। নির্দিষ্ট কোনো সফটওয়্যার নিয়ে ঘাঁটাঘাঁটি করলে চলবে না। যত বেশি গ্রাফিক্স সফটওয়্যার জানা থাকবে কাজের পরিধিও তত বাড়বে। সঙ্গে সঙ্গে উপার্জনও বাড়বে অনেকগুণ। গ্রাফিক্স ডিজাইনার হিসেবে কাজ শুরু করার জন্য প্রথমে নূ্যনতম তিনটি সফটওয়্যার শিখতে হবে। আমাদের দেশে বিভিন্ন পাবলিকেশন অ্যাড ফার্ম রয়েছে। পত্রিকায় কাজ করার জন্য প্রধানত এডব ফটোশপ, এডব ইলাস্ট্রেটর ও কোয়ার্ক এক্সপ্রেস এ তিনটি সফটওয়্যার ব্যবহার করা যায়। ★গ্রাফিক্স ডিজাইনার হিসেবে কাজ করতে হলে একজন নারী বা পুরুষের শিক্ষাগত যোগ্যতা কমপক্ষে স্নাতক কিংবা সমমানের হতে হবে। সেইসঙ্গে গ্রাফিক্স ডিজাইনের ওপর জ্ঞান অর্জন করতে হবে। তবে এ পেশায় শিক্ষাগত যোগ্যতার চেয়ে গ্রাফিক্স সংশ্লিষ্ট কাজের অভিজ্ঞতা অনেক বেশি প্রয়োজন। ★গ্রাফিক্স ডিজাইনার হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করতে হলে একজন ব্যক্তিকে অবশ্যই ডিজাইন সংশ্লিষ্ট সব ধরনের কাজ সম্পর্কে ভালো ধারণা রাখতে হবে। তাই প্রযুক্তির উৎকর্ষের সঙ্গে সঙ্গে নিজেকে সময়োপযোগী করে গড়ে তুলতে হবে। কোথায় পড়াশোনা করা যায় : ফাইন আর্টস, গ্রাফিক্স আর্ট ইনস্টিটিউট, শান্ত মারিয়াম, ইউডাসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার মান অনেক উন্নত হয়েছে। এছাড়া ইউটিউবে টিউটোরিয়াল গুলা।দেখতে পারেন।

Md. Ibrahim Akon  

গুণী

আমি যেভাবে শিখেছি... আপনি সেটা কোরতে পারেন Youtube থেকে আপনি আপনার প্রয়োজন মত Design Tutorial সার্চ দিয়ে পছন্দ অনুযায়ী ডাউনলোড করে অনুশীলন করতে পারেন স্পেশাল এবং ক্রিয়েটিভ ডিজাইন শিখতে পারবেন আশা করি :)

মো:আ:মোতালিব  আসুন রাজনীতিকে ঘৃণা না করে,আমরা সকলে ...সকলের হাতে হাত রেখে সুস্থ রাজনীতি করি-

মহাগুরু

কি: চিত্রলেখ বিষয়ক শিল্পকর্মকেই গ্রাফিক্স ডিজাইন বা Graphic design বলা হয়ে থাকে।সহজভাবে বলতে গেলে টেক্ট বা নকশা ব্যবহার করে সুন্দর এবং মানসম্মত চিত্রকর্ম তৈরি করাকে গ্রাফিক্স ডিজাইন বলা হয়ে থাকে।আরও সহজভাবে বলতে গেলে বলতে হয় আপনি নিশ্চই প্রথম আলো বা অন্য কোন সংবাদ মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের চিত্র দেখতে পান,বিভিন্ন কোম্পানির এড দেখতে পান ।এই যে চিত্রগুলো আপনি দেখতে পান এই চিত্রগুলোকেই বলা হচ্ছে গ্রাফিক্স ডিজাইন।আগের যুগে যে চিত্রকর্মগুলো শিল্পীরা হাতে একে তৈরি করত এখন সেইসব জিনিস তৈরি করা হচ্ছে কম্পিউটারের কিছু অসাধারন সফটঅয়্যার দিয়ে।এতে করে চিত্রগুলোকে আরও বাস্তবসম্মত করা সম্ভব হচ্ছে।কিছু সময় উপযোগী গ্রাফিক্স ডিজাইন সফটঅয়্যার হচ্ছে-adobe photoshop cs ,adobe illustrator cs,quark xpress etc. বর্তমান বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে গ্রাফিক্স ডিজাইন: আমরা সাধারনত অপ্রয়োজনীয় কাজে সময় ব্যয় করে থাকি তারপর যখন পিছিয়ে পড়ি তখন করার কিছু থাকে না।আমরা ইচ্ছে করেই কোন কিছুকে গুরুত্ব দেই না।গ্রাফিক্স ডিজাইন ,থ্রি ডি এনিমেশন এর মত বিষয় গুলো আমাদের জানা থাকলে আমরা বেকারত্বের অন্ধকার থেকে রেহাই পেতাম।আমাদের আর হতাশার দীর্ঘশ্বাস ফেলতে হত না।হতাশা কাটাতে আপনার একটি কম্পিউটার+ইন্টারনেট হলেই যথেষ্ট শুধু থাকতে হবে আপনার দৃঢ় সংকল্প তাহলেই আপনি সব বাধাকে পিছনে ফেলে সামনের উজ্বল আলো দেখতে পারবেন।এই মুহুর্তে বাংলাদেশ সহ সারা বিশ্বে গ্রাফিক্স ডিজাইনারের চাহিদা ব্যাপক।তাই আপনি যদি একটু চেষ্টা করেন তাহলে মাত্র কয়েকমাসের ভিতরেই গ্রাফিক্স ডিজাইন আয়ত্বে এনে নিজেকে বদলে দিতে পারেন।একজন ভালমানের গ্রাফিক্স ডিজাইনার মাসে এক-দেড় লক্ষ টাকা ইনকাম করেন এ রকম উদাহরন খুব কম নেই। কি কাজে লাগে? বর্তমান যুগ তথ্যপ্রযুক্তির যুগ।তথ্যপ্রযুক্তির এই যুগে আপনি যত আপডেট থাকবেন আপনার জন্য ততই মঙ্গলজনক।আপনি নিশ্চই জানেন বাংলাদেশের বর্তমান বেকারত্ব সম্পর্কে।এই অবস্থায় এটি হতে পারে আপনার জন্য একটি দারুন উপায়। গ্রাফিক্স ডিজাইন বিভিন্ন কাজে লাগে।যেসব ক্ষেত্রে গ্রাফিক্স ডিজাইনকে কাজে লাগানো যায় তার সম্ভাব্য কিছু বিষয় তুলে ধরার চেষ্টা করছি। সংবাদপত্র: Newspaper বা সংবাদপত্র হচ্ছে একটি বিশাল কর্মক্ষেত্র।একটি ভালমানের সংবাদপত্রের প্রতিষ্ঠানে অনেক লোকের একইসঙ্গে কর্মের ব্যবস্থা হয়ে থাকে।একটি সংবাদ পত্রে অনেক ধরনের চিত্রমূলক বা ........

যা সবচেয়ে দরকার তা হচ্ছে কাজ শেখার আগ্রহ আর লেগে থাকার মত ধৈর্য্য।

mahomudul hasan rubel  আমি পৃথীবির সবচেয়ে স্বার্থপর মানুষ।আমি কাউকে ভালবাসতে পারিনা। আমিই স্বার্থপর।

গুণী

Graphic design এ কাজের মূলকথা হল কাজের যোগ্যতা।তাই এ কাজ ভালভাবে শিখে বিভিন্ন ধরনের কাজে নিজেকে ডেভলপ করাই বড় কথা। কম্পিউটারের মাধ্যমে যেসব সফটওয়্যার ব্যবহার করে ডিজাইনের কাজ করা হয় সেগুলোই হলো গ্রাফিক্স সফটওয়্যার। আমাদের দেশে বেশি ব্যবহৃত হয় এমন কয়েকটি সফটওয়্যার হলো_ এডব ফটোশপ, এডব ইলাস্ট্রেটর, এডব ইমেজ রেডি, কোয়ার্ক এক্সপ্রেস, পেজমেকার ইত্যাদি। এসব সফটওয়্যার বিভিন্ন কাজের জন্য বিশেষ উপযোগী। সবার আগে বেসিক কম্পিউটার ও ইংরেজি ভাষায় মোটামুটি দক্ষতা থাকা দরকার। ★গ্রাফিক্স ডিজাইন করার জন্য অনেক সফটওয়্যার রয়েছে। তবে কাজের ধরন অনুযায়ী সফটওয়্যার প্রয়োজন হয়। দক্ষ গ্রাফিক্স ডিজাইনার হতে হলে অনেক ধরনের সফটওয়্যার সম্পর্কে ধারণা নিতে হবে আপনাকে। নির্দিষ্ট কোনো সফটওয়্যার নিয়ে ঘাঁটাঘাঁটি করলে চলবে না। যত বেশি গ্রাফিক্স সফটওয়্যার জানা থাকবে কাজের পরিধিও তত বাড়বে। সঙ্গে সঙ্গে উপার্জনও বাড়বে অনেকগুণ। গ্রাফিক্স ডিজাইনার হিসেবে কাজ শুরু করার জন্য প্রথমে নূ্যনতম তিনটি সফটওয়্যার শিখতে হবে। আমাদের দেশে বিভিন্ন পাবলিকেশন অ্যাড ফার্ম রয়েছে। পত্রিকায় কাজ করার জন্য প্রধানত এডব ফটোশপ, এডব ইলাস্ট্রেটর ও কোয়ার্ক এক্সপ্রেস এ তিনটি সফটওয়্যার ব্যবহার করা যায়। ★গ্রাফিক্স ডিজাইনার হিসেবে কাজ করতে হলে একজন নারী বা পুরুষের শিক্ষাগত যোগ্যতা কমপক্ষে স্নাতক কিংবা সমমানের হতে হবে। সেইসঙ্গে গ্রাফিক্স ডিজাইনের ওপর জ্ঞান অর্জন করতে হবে। তবে এ পেশায় শিক্ষাগত যোগ্যতার চেয়ে গ্রাফিক্স সংশ্লিষ্ট কাজের অভিজ্ঞতা অনেক বেশি প্রয়োজন। ★গ্রাফিক্স ডিজাইনার হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করতে হলে একজন ব্যক্তিকে অবশ্যই ডিজাইন সংশ্লিষ্ট সব ধরনের কাজ সম্পর্কে ভালো ধারণা রাখতে হবে। তাই প্রযুক্তির উৎকর্ষের সঙ্গে সঙ্গে নিজেকে সময়োপযোগী করে গড়ে তুলতে হবে। কোথায় পড়াশোনা করা যায় : ফাইন আর্টস, গ্রাফিক্স আর্ট ইনস্টিটিউট, শান্ত মারিয়াম, ইউডাসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার মান অনেক উন্নত হয়েছে। এছাড়া ইউটিউবে টিউটোরিয়াল গুলা। দেখতে পারেন।

nazimnure  

গুণী

আমি মনে করি, youtube থেকে শেখা বা কারো থেকে দেখে শেখা এটা মূল শেখা নয়। ডিজাইনার হতে হলে নিজের চক্ষু, মন হতে হবে কালারফুল। সেখান থেকে আপনি যা প্রদর্শন করবেন তা হবে মুলত।

হোস্টিং রিভিউস বিডি  https://hostingreviews.com.bd/

জ্ঞানী

.

একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনারের দায়িত্ব হলো তার কাজ, পণ্য বা সেবার মান  ও ভাবমূর্তি ভালোভাবে ফুটিয়ে তোলা।  পূর্বপরিকল্পনা ছাড়া ডিজাইন করতে গেলে যতোই ভালো পণ্য হোক না কেন সেটি প্রথমেই বিফল হতেই হবে। তাই একটি নিদ্দিষ্ট পরিকল্পনা ও সৃজনশীলতাকে একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনারের মানকে উন্নত করে।  নিজেকে দক্ষ করতে পারলে একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনারের কাজের অভাব হয় না! সম্প্রতি দেয়া এক তথ্যমতে, বর্তমানে প্রায় ৩৫ শতাংশ মানুষ  গ্রাফিক্স ডিজাইনারের কাজ করে আত্বনির্ভরশীল ও স্বাবলম্বী।একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনারের কাজের ক্ষেত্র হিসেবে ইন্টার্যা ক্টিভ মিডিয়া, প্রমোশনাল ডিসপ্লে, জার্নাল, কর্পোরেট রিপোর্টস, মার্কেটিং ব্রোশিউর, সংবাদপত্র, ম্যাগাজিন, লোগো ডিজাইন, ওয়েবসাইট ডিজাইনসহ বিভিন্ন বিষয় রয়েছে। দেশীয় বা অনলাইন মার্কেটপ্লেস যেটাই বলি না কেনো প্রতিনিয়ত গ্রাফিক্স ডিজাইনের কাজের সংখ্যা বেড়েই চলেছে।

কোথায় পড়াশোনা করা যায় : ফাইন আর্টস, গ্রাফিক্স আর্ট ইনস্টিটিউট, শান্ত মারিয়াম, ইউডাসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার মান অনেক উন্নত হয়েছে।এছাড়া ইউটিউবে টিউটোরিয়ালগুলি দেখতে পারেন।

Asim sarker  প্রথাবিরোধী কবি

বিশারদ

গ্রাফিক্স ডিজাইন হলো কোনো কিছু আকা বা ডিজাইন করা। কম্পিউটারের মাধ্যমে যেসব সফটওয়্যার ব্যবহার করে ডিজাইনের কাজ করা হয় সেগুলোই হলো গ্রাফিক্স সফটওয়্যার। আমাদের দেশে বেশি ব্যবহৃত হয় এমন কয়েকটি সফটওয়্যার হলো_ এডব ফটোশপ, এডব ইলাস্ট্রেটর, এডব ইমেজ রেডি, কোয়ার্ক এক্সপ্রেস, পেজমেকার ইত্যাদি। এসব সফটওয়্যার বিভিন্ন কাজের জন্য বিশেষ উপযোগী। সবার আগে বেসিক কম্পিউটার ও ইংরেজি ভাষায় মোটামুটি দক্ষতা থাকা দরকার। ★গ্রাফিক্স ডিজাইন করার জন্য অনেক সফটওয়্যার রয়েছে। তবে কাজের ধরন অনুযায়ী সফটওয়্যার প্রয়োজন হয়। দক্ষ গ্রাফিক্স ডিজাইনার হতে হলে অনেক ধরনের সফটওয়্যার সম্পর্কে ধারণা নিতে হবে আপনাকে। নির্দিষ্ট কোনো সফটওয়্যার নিয়ে ঘাঁটাঘাঁটি করলে চলবে না। যত বেশি গ্রাফিক্স সফটওয়্যার জানা থাকবে কাজের পরিধিও তত বাড়বে। সঙ্গে সঙ্গে উপার্জনও বাড়বে অনেকগুণ। গ্রাফিক্স ডিজাইনার হিসেবে কাজ শুরু করার জন্য প্রথমে নূ্যনতম তিনটি সফটওয়্যার শিখতে হবে।আর গ্রাফিক্স ডিজাইনের কাজটি কোরিয়া টেকনিক্যাল ইনস্টিটিউট থেকে শিখলে বেটার হয়।

FARUK HASSAN  ফারুক হাসান রবি

গুণী

Graphic design এ কাজের মূলকথা হল কাজের যোগ্যতা।তাই এ কাজ ভালভাবে শিখে বিভিন্ন ধরনের কাজে নিজেকে ডেভলপ করাই বড় কথা। কম্পিউটারের মাধ্যমে যেসব সফটওয়্যার ব্যবহার করে ডিজাইনের কাজ করা হয় সেগুলোই হলো গ্রাফিক্স সফটওয়্যার। আমাদের দেশে বেশি ব্যবহৃত হয় এমন কয়েকটি সফটওয়্যার হলো_ এডব ফটোশপ, এডব ইলাস্ট্রেটর, এডব ইমেজ রেডি, কোয়ার্ক এক্সপ্রেস, পেজমেকার ইত্যাদি। এসব সফটওয়্যার বিভিন্ন কাজের জন্য বিশেষ উপযোগী। সবার আগে বেসিক কম্পিউটার ও ইংরেজি ভাষায় মোটামুটি দক্ষতা থাকা দরকার।

আমার মতে, একজন স্টুডেন্ট এর জন্য ফ্রিলান্সিং এর চেয়ে ভাল কোন বাড়তি আয়ের রাস্তা হতেই পারেনা। এইটা এই কারণে বলছি যেঃ ১) এতে তেমন কোন আর্থিক পুঁজির দরকার নেই, শুধু ল্যাপটপ / কম্পিউটার এবং ইন্টারনেট সংযোগ থাকলেই হয়। ২) এর জন্য কোন বাধা ধরা নিয়ম নেই, পড়াশুনার ব্যস্ততার সাথে সংগতি রেখে ফ্রিলান্সিং এর ব্যাস্ততা বাড়ানো / কমানো সম্ভব। ৩) ফ্রিলান্সিং করতে গেলে নির্দিষ্ট একটি কাজের জন্য অনেকগুলো বিষয়ের উপর চর্চার দরকার হয়ে থাকে, যা আপনার সার্বিক জ্ঞানের পরিধিকে অনেক বিস্তৃত করবে। ৪) ফ্রিলান্সিং এমন একটি পেশা, যা চাইলেই আপনি পার্ট টাইম থেকে ফুল টাইম হিসেবে শুরু করতে পারবেন। ৫) একজন ফ্রিলান্সার সর্বজন স্বীকৃত একজন আন্তর্জাতিক কর্মী, কারণ তিনি আন্তর্জাতিক বাজার থেকেই তার রুটি-রুযী নিশ্চিত করে থাকেন। ৬) ছাত্রাবস্থায় একজন ফ্রিলান্সার মাসে ১০,০০০-২৫,০০০ টাকা অনায়াসেই উপার্জন করতে পারে (যদি তিনি কাজে দক্ষ হয়ে থাকেন)। আর যদি এই পেশাকে ফুল টাইম হিসেবে নেয়া যায় তবে মাসে ৫০,০০০- ১০০,০০০ টাকাও উপার্জন খুব কঠিন কিছুনা। শেষ কথায় বলব, একজন সফল ফ্রিলান্সার হতে গেলে হয়ত দীর্ঘ সময় অতিক্রম করতে হবে, কিন্তু মাসে ১০,০০০ টাকার লেভেলে উঠার জন্য ২-৩ মাস সময়ই যথেষ্ট। এখন আপনার চাহিদা কততে মিটবে সেটা আপনিই ভাল জানেন। আর আপনার চাহিদা মিটাতে ফ্রিলান্সিং যথেষ্ট কিনা সেই সিদ্ধান্তও আপনাকেই নিতে হবে। http://z5skypehot.blogspot.com/

মিনহাজুল ইসলাম  মায়ের আদরের ছেলে ।

গুরু

বাংলাদেশে গ্রাফিক্স এর অবস্তা একটু বেশিই খারাপ।তাই এটার জন্য দেশের বাইরে যাওয়াই বেটার।


অথবা,