Preview
প্রশ্ন করুন
রিলেটেড কিছু বিষয়

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

দীপ্তি  আমি শান্ত, সাম্য, আহ্লাদী, মিশুক, পরিপাটি, গোছালো, খুব নরম মনের একজন সাধারণ মানুষ :)

মহাগুরু

রাস্তার কোনো খাবারই স্বাস্থ্যসন্মত নয়, তাই সেগুলো খাওয়া একেবারেই সঠিক নয় l তাই যথাসম্ভব এড়িয়ে চলুন l হোটেলের খাবার খেলে বুক জ্বালা পোড়া হওয়াটাই স্বাভাবিক কারণ অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে সেখানে খাবার তৈরী হয় এবং বাসী খাবার, একই তেলে বার বার ভাজা এসব কিন্তু শরীরে রোগ সৃষ্টির জন্য মারাত্বক l তাই হাজার ব্যস্ততার মাঝে নিজের খাবারের ব্যবস্থ্যা কিছু হলেও করে রাখুন l যেদিন রান্না করার সময় পাবেন না সেদিন প্রয়োজনে চিড়া ভিজিয়ে টক দই দিয়ে খান, সাথে কলা রাখুন, এতে আপনার পেট ভরার সাথে সাথে পেটকে ঠান্ডাও রাখবে খাবারটি l নুডুলস বানিয়েও খেতে পারেন l পুরি , সিঙ্গারা এড়িয়ে পাউরুটি কলা কিনে খান, রাস্তায় বিভিন্ন জায়গায় ডিম সেদ্ধ বিক্রি হয়, একটা ডিম খেয়ে নিন, অনেকক্ষণ পেট ভরা থাকবে তাতে l বিস্কুট আর পানি রাখুন সাথে, ফলের দোকান হাতের নাগালে পেলে পছন্দমত একটি ফল কিনে খেয়ে নিন l তবে, রাস্তায় বিক্রি করা কাটা ফল একেবারেই খাবেন না, এমনকি কোনো শরবতও নয় l খুব ভালো হয় যদি, ব্যাগে আলাদা আলাদা প্যাকেটে আপনি কিসমিস, কাঠবাদাম, খেজুর আর আমলকি রাখতে পারেন, যখনই মনে হবে খিদে পেয়েছে, একটা একটা করে ড্রাই ফুড খেয়ে নিন, দেখবেন আপনার বুক জ্বালাপোড়ার সমস্যা একেবারেই গায়েব l আমিও ভাই নিজেই নিয়মিত রান্না করে খাই, তবে আপনার মত ব্যস্ততার কারণে কোনো কারণে রান্না করতে না পারলে এসব উপায় বের করে ফেলি, তবুও রাস্তার খাবার একদমই খাই না l তাই হয়ত বেশ ভালো আছি, গ্যাস্ট্রিক নেই বললেই চলে আমার l এভাবে এক আধ বেলা কষ্ট করে বাসায় ফিরে নিজে রান্না করে যখন খাবেন, দেখবেন সেটা শুধু ভর্তা-ভাত হলেও খেতে কি অমৃত লাগে l আশা করি, আমার উত্তর আপনার উপকারে লাগবে l ভালো থাকুন, সুস্থ্য থাকুন, রাস্তার খাবার এড়িয়ে চলুন l

১ টি উত্তর লুকিয়ে রাখা হয়েছে

নাবালক

গুরু

প্রতি নিয়ত ভালর খোজে.....

মোটেও ঠিক না।

অথবা,