Preview
প্রশ্ন করুন
রিলেটেড কিছু বিষয়

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

( ১২ টি উত্তর আছে )

( ২,৭১৭ বার দেখা হয়েছে)

Mohammad Shahin Mia  কেউ আমার কাছে কিছু চাইলে, আর তা যদি আমার কাছে থাকে তবে তাকে আমি খালি হাতে ফেরাই না..................

জ্ঞানী

অফিস পলিটিক্স জবের একটি অংশ, এটা থেকে নিজেকে যতটুকু সম্ভব নিজেকে বাঁচিয়ে রাখা ভাল। বাঁচতে হলে, করনীয় সমূহঃ ১। কথা কম বলুন। ২। বেশী করে কথা শুনুন। ৩। "না" শব্দ কোনকিছুতেই বলা যাবে না। ৪। "তেল" মারা শিখুন ৫। শত্রু কে সব সময় বড় পিড়ি দিতে হয়। ৬।নিজের কাজটি ভালভাবে করুন।৭। কাজভাল জানলে ও করলে কেউ আপনার ক্ষতি করতে পারবে না। ৮।মনে রাখবেন তেল মেরে ক্ষমতা পাওায়া যার, কিন্তু কাজ জানা না থাকলে তা ধরে রাখা যায় না।৯। মার্জিত ভাষায় কথা বলুন। আর কিছু লাগবে না, ভাল থাকুন।

আড্ডাবাজ  বলি কম-শুনি বেশি; আড্ডা মারতে ভালবাসি।

জ্ঞানী

উত্তর সহজ *বোবা* হয়ে থাকা। কারণ বোবার কোনো শত্র নেই....

রিয়াদ আহমেদ  কল্পনাকে ভালোবাসি(Imagine)

বিশারদ

মানুষের জীবনের প্রত্যেকটি অবস্হানই কিছু প্রতিকুলতা খাকে। এই প্রতিকুলতা প্রতিরোধ করে এগিয়ে যাওয়াই তো জীবন...আর এভাবেই এগাতে হয়,এটাই বাস্তবতা....আপনিও এভাবেই এপর্যন্ত এসেছেন, তবে এখন একটা নতুন চ্যালেন্জ মোকাবেলা করতে হচ্ছে আপনাকে....অফিস পলিটিক্স খেকে রক্ষা পাবার চেয়ে বরং এটাকে কিভাবে মোকাবিলা করবেন তাই ভাবুন....এটাই আপনার এই অবস্হানের প্রতিকুলতা...

rupanzil  ভাবনায় ডুবি ভাসি .....

পন্ডিত

আমদের অফিস পলিটিক্স দেখলে হাসিনা খালেদাও লজ্জা পাবে..তবুও তো কাজ করে যেতে হয়..এক অফিসের সবাই যদি সম মনা না হয় তবেই সমস্যা .. আর জেলাসি ও একটা কারণ.. আর একদল থাকে যাদের কাজই হসচে অন্যের পিছন লাগা.যত টা সম্ভব নিরপেক্ষ থাকার চেষ্টা করবেন ..যদিও খুব খারাপ লাগে তার পর মানিয়ে চলতে হয়..

Shopnil Digonto  

জ্ঞানী

অনেক ক্ষেত্রে চুপ করে থেকেও রক্ষা পাওয়া যায় না। সেক্ষেত্রে ভদ্রভাবে সমস্যা নিয়ে কথা বলুন যার সাথে আসলেই সমস্যা। চেষ্টা করুন negotiate করতে।

ইউসুফ  বাংলাদেশে 'বাংলাদেশী' থাকতে চাই

মহাগুরু

সততা, নীরবতা আর নন-কমিটাল মৃদু হাসি - এই তিন কম্বিনেশন চেষ্টা করে দেখতে পারেন।

তারিফ মোহাম্মদ খান  হতবাক নাগরিক!

গুণী

সাদ, এটা এমন একটা সমস্যা যা সবাই মোটামোটি সম্মুখীন হই। আমি ব্যক্তিগতভাবে কিছু বিষয় নিজ কর্মক্ষেত্রে মানি। সেগুলোই শেয়ার করছি। প্রথমত, সহকর্মীকে বন্ধু ভাবি কিন্তু কাজের ক্ষেত্রে; দ্বিতীয়ত, সবার আগে নিজের কাজটির গুরুত্ব দেই, পরে অন্যকে সাহায্য করি যথাসম্ভব; তৃতীয়ত, হাসি দিয়ে কথা বলি সর্বদা - অনেককিছুই সহজ হয়ে যায় :) আমার এই বিষয়ে একটি ফিচারও রয়েছে; চাইলে একটু পড়ে দেখতে পারো। লিঙ্কঃ http://bit.ly/ZcLo2U

ANM ZAHID  

গুণী

সরল সিধা ভাবে চলুন, সরলতার কোনো শত্রু নাই

লাল ভাই  

গুণী

রাজনীতি নিয়ে কথা হলে , নিরব থাকতে হবে। আর সবার প্রশ্নের উত্তর হবে ম্রিদু হাসি

Saifur Rahman Sahan  

গুণী

নিজেকে সবসময় সৎ, নিষ্টাবান ও ঝুকিমুক্ত মনে করুন। দেখবেন সবকিছু ঠিক হয়ে যাচ্ছে। হাসিমুখে কথা আর ভালবাসা দিয়ে সবার মন জয় করুন। নিজের অবস্থান তৈরী করুন অর্থাৎ নিজের দুঃসময়ে পক্ষে কথা বলার মানুষ (মাইম্যান) তৈরী করুন।

ফিটকিরি  কর্মই ধর্ম

জ্ঞানী

অফিস পলিটিক্স থেকে বাঁচার সবচেয়ে উত্তম উপায় হল বসের চামচামি করা | হ্যা লজ্জা শ্রমের কিছু নেই , আধুনিক যুগে চামচামি খুবই স্বাভাবিক একটা ব্যাপার |


অথবা,