Preview
প্রশ্ন করুন

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

Preview হায়াদ্রাবাদের বিরিয়ানীর রেসিপি কারো জানা আছে কি? জানা থাকলে কিভাবে রাধতে হয়, আমাদেরও জানান।

*মাংসেররেসিপি* *বিরিয়ানি* *রেসিপি* *উপমহাদেশীয়খাবার* *নতুনরেসিপি* *মাটন* *চিকেন* *মাটনরেসিপি*
( ৪ টি উত্তর আছে )

( ৪,৭৯৮ বার দেখা হয়েছে)

শ্রীলা উমা  আমি বরাবরই একজন রাবীন্দ্রিক প্রেমিকা হতে চেয়েছিলাম

মহাগুরু

হায়দ্রাবাদী বিরিয়ানি সাধারণত চিকেন/মাটন দু ধরনেরই হয় l আমি যে রেসিপি টি বলছি এটা মাটন এর,রান্না করতে আপনার যা যা উপকরণ লাগবে তা হলো : মাটন ( হাড়সহ ও হাড়ছাড়া) ,বাসমতি চাল,লবন,তেজপাতা,গোলমরিচ,লবঙ্গ,ছোট এলাচ,বড় এলাচ,দারচিনি,শাহী জিরা,পেয়াজ কুচি,আদা বাটা,রসুন বাটা,লাল মরিচ গুড়ো,টক দই,ধনে পাতা কুচি,পুদিনা পাতা কুচি,ঘি,তেল,জাফরান(আধ কাপ উষ্ণ দুধে ভেজানো) l প্রস্তুত প্রণালী : হাড়িতে চালের ৩ গুন পরিমান পানি নিন,এতে তেজ পাতা,লবন,দারচিনি,ছোট এলাচ,গোলমরিচ দিয়ে ফুটতে দিন l পানি ফুটে উঠলে ধুয়ে পানি ঝরানো বাসমতি চাল দিয়ে দিন,চাল ৩/৪ সেদ্ধ হওয়া পর্যন্ত রান্না করুন,পানি ঝরিয়ে বাতাসে ছরিয়ে রাখুন l এবার কড়াই তে বেশি করে তেল দিয়ে কিছুটা পেয়াজ সোনালী রং করে ভেজে তুলে রাখুন l ছোট এলাচ,গোলমরিচ,লবঙ্গ,দারচিনি,শাহী জিরা শুকনো তাওযায় ভেজে গুড়ো করে রাখুন,এবার একটি বড় বাটিতে মাটন,আদাবাটা,রসুন বাটা,লবন,ভাজা মসলা গুড়ো,লাল মরিচ গুড়া,ভাজা পেয়াজ অর্ধেকটা,টক দই,তেজ পাতা,পুদিনা পাতা কুচি,তেল দিয়ে মেখে ম্যারিনেট করে ২ ঘন্টা ফ্রিজে রাখুন l একটি সসপ্যানে ঘি গরম করে দারচিনি,বড় এলাচ দিন সুগন্ধ বেরোলে পেয়াজ কুচি দিয়ে সোনালী করে ভাজুন এতে ম্যারিনেট করা মাটনটা দিয়ে ৫ মিনিট হাই আছে রান্না করুন,এবার আচ কমিয়ে ঢাকা দিয়ে সেদ্ধ হওয়া পর্যন্ত রান্না হতে দিন l একটি ছড়ানো সসপ্যানে ঘি দিয়ে রান্না করা চালটা অর্ধেক ছরিয়ে দিন তার উপর মাটন টা ছরিয়ে দিন,এর উপর ধনে ও পুদিনা পাতা কুচিটা ছরিয়ে উপরে বাকি রান্না করা চালটা দিন l উপর থেকে জাফরান ভেজানো দুধটা ভালো করে ছরিয়ে দিন l আচ একদম কম করে চাল সু-সিদ্ধ হওয়া পর্যন্ত রান্না করুন l উপর থেকে ভেজে রাখা বাকি পেয়াজ আর ঘি ছরিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন কাবাব আর রায়তার সাথে l

আহসানুর রহমান  ঝামেলা বিহীন

গুণী

(১)বাসমতি চাল ২৫০ গ্রাম,কাচামরিচ ২ টা (২) মুরগি বড় ১ টি পিচ করা ,কাচামরিচ বাটা (৩) বাগার পেয়াজ কুচি ১ কাপ ,পুদিনা পাতা প্রণালী:প্রথমে হাড়িতে অর্দেখটা ঘি গরম করে সেদ্ধ ভাত দিয়ে তার উপর বাগার দিয়ে মুরগির রান দেবেন.এভাবে ২ বার দিয়ে একদম শেসে জাফরান ,বাকি ঘি ও একমুঠ বেরেস্তা উপরে ছিটিয়ে ১৫ থেকে ২০ মিনিট দমে রেখে নামিয়ে সালাদ দিয়ে গরম দরম পরিবেসন করুন.

আদনান রাকিব  আমি সময়ের পরীক্ষায় অপরাজিত সৈনিক।

জ্ঞানী

ইউটিউব এ দেখেন http://www.youtube.com/watch?v=7HI1D6sti3g

অবশেষে আমি  ভাবতে বসেছি

গুরু

যা লাগবেঃ হাড় যুক্ত খাসি-র ছোট ছোট মাংসের টুকরো (বুকের হলে ভালো হয়) ৫০০ গ্রাম,বাসমতী চাল ১ ১/২ কাপ, লবণ স্বাদমতো, তেজপাতা ২ টি, সবুজ এলাচ ১০টি, কালো গুল মরিচ দানা ২৫-৩০টি, দারুচিনি ৩ ইঞ্চি, তেল ১ টেঃ চামচ + ভাজার জন্য আলাদা তেল, পেঁয়াজ(বড়) কুচি ৫ টি, কেওড়া ১/২ চা চামচ, লবঙ্গ ১০টি, আদা পেস্ট ১ টেঃ চামচ, রসুন পেস্ট ১টেঃ চামচ, লাল মরিচ গুঁড়া ১ টেঃ চামচ, দই ১ কাপ,ধনে পাতা ২ টেঃ চামচ, পুদিনা পাতা ২ টেঃচামচ, ঘি ৪ টেঃচামচ, কালো এলাচ ২ টি, কিছু জাফরান মিশানো দুধ ১/৪ কাপ । এবার রান্নাঃ একটি গভীর হাড়িতে পাঁচ থেকে ছয় কাপ পানি আগে ফুটিয়ে নিন, এরপর চাল, লবণ, তেজ পাতা, ৫ টি সবুজ এলাচ, ৭/৮ টি কালো গোলমরিচ দানা, খানিকটা দারুচিনি একসাথে মিশিয়ে চড়িয়ে দিন, ৭৫ ভাগ পর্যন্ত রান্না হয়ে এলে নামিয়ে নিন। পাশাপাশি আর একটি কড়াইতে তেল গরম করে অর্ধেক পরিমান পেঁয়াজ কুচি ভাজুন, সোনালী রঙ ধরে এলে নামিয়ে নিন আর তেল শুষে নিতে কিচেন পেপারের উপর রাখুন। কেওড়া, দারুচিনি, অবশিষ্ট কালো গোলমরিচ, লবঙ্গ এবং বাকি সবুজ এলাচ ভালোভাবে গুড়ো করে রেখে দিন। এরপর একটি বাটির মধ্যে মাংসের টুকরা নিন. আদা পেস্ট, রসুন পেস্ট ও লবণ সহকারে ভালো করে মাখিয়ে নিন। তারপর রাখা মসলা গুঁড়া, সাথে লাল মরিচ গুঁড়া, আধা ভাজা পেঁয়াজ যোগ করে, দই, ধনে পাতা, অর্ধেকটা পুদিনা পাতা এবং এক টেবিল চামচ তেল মিশিয়ে ম্যারিনেট করে ফ্রিজ এ প্রায় দুই ঘন্টা রেখে দিন । এবার আসুন শেষ পর্বে: একটি কড়াইতে ঘি ২ টেবিল চামচ, অবশিষ্ট দারুচিনি এবং কালো গোলমরিচ, এরপর অবশিষ্ট পেঁয়াজ যোগে হালকা সোনালী রঙ হওয়া পর্যন্ত ভালো করে কষান সুগন্ধ বের হওয়া পর্যন্ত, অতপর ম্যারিনেট করা খাসির মাংস ঢেলে দিয়ে চুলার তাপ বাড়িয়ে দিন এবং তিন থেকে চার মিনিট নাড়তে থাকুন । এরপর ঢাকনি দিয়ে তাপ কমিয়ে দিন কারন রান্না প্রায় শেষ হওয়ার পথে । সর্বশেষ আলাদা একটি হাড়ি-র মধ্যে অবশিষ্ট ঘি পুরোটা ছড়িয়ে অল্প আঁচে রাখুন তারপর এর উপর এক স্তর অর্ধেকটা আগের রান্না করা চাল ছড়িয়ে দিন, তার উপর খাশির মাংস সাথে বাকি পুদিনা পাতা দুহাতে কচলে ছড়িয়ে দিন এরপর বাকি চাল ছড়িয়ে মাংস গুলো ঢেকে দিন। এখন সবার উপর জাফরান দুধ ভালমত ছিটিয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দম এ দিয়ে রাখুন । ভালো হয় তাওয়ার উপর পাতিল বা হাড়ি- টি রেখে দম দিলে। আর কি, ব্যাস হয়ে গেল আপনার পছন্দের হায়াদ্রাবাদী বিরিয়ানি । এবার গরম গরম পরিবেশন করুন !


অথবা,